Home কর্পোরেট সংবাদ ইউনিক হোটেল এন্ড রিসোর্টস্ লিমিটেডের ১৫তম এজিএম অনুষ্ঠিত, ২২ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ অনুমোদন

ইউনিক হোটেল এন্ড রিসোর্টস্ লিমিটেডের ১৫তম এজিএম অনুষ্ঠিত, ২২ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ অনুমোদন

SHARE
কর্পোরেট সংবাদ

Published: ডিসেম্বর ২২, ২০১৬ ২০:২৭:১৮
263
0

পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ভ্রমণ ও অবকাশ খাতের কোম্পানি ইউনিক হোটেল অ্যান্ড রিসোর্টস লিমিটেডের শেয়ারহোল্ডাদের সর্বসম্মতিতে ২০১৫ এবং ৩০ জুন ২০১৬ পর্যন্ত সময়ের জন্য ২২ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ অনুমোদন করেছে। আজ বৃহস্পতিবার রাজধানীর পান্থপথে ইউনিক ট্রেড সেন্টারে কোম্পানির ১৫তম বার্ষিক সাধারণ সভায় এ অনুমোদন করা হয়। ইউনিক হোটেল অ্যান্ড রিসোর্টস লিমিটেডের চেয়ারপারসন সেলিনা আলীর সভাপতিত্বে বার্ষিক সাধারণ সভায় অন্যদের মধ্যে ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোহা. নূর আলী,  কোম্পানির পরিচালক মো. মহসিন আলী, গাজী মো. সাখাওয়াত হোসেন, চৌধুরী নাফিজ সারাফাত, রোটারিয়ান গোলাম মুস্তাফা, কোম্পানি সেক্রেটারি শরীফ হাসান এবং বিপুল সংখ্যক শেয়ারহোল্ডারা উপস্থিত ছিলেন।

ইউনিক হোটেল অ্যান্ড রিসোর্টস লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোহা. নুর আলী বলেন, আগের বছরগুলোর মতো ধারাবাহিকতায় ২০১৫ সাল এবং ২০১৬ সালের ৩০ জুন পর্যন্ত ইউনিক হোটেল ভালো আয় করেছে। ফলে আগের বছরের তুলনায় এবার লভ্যাংশও ভালো দিতে সক্ষম হয়েছি, যা কোম্পানির সম্পদ ভিত্তিরই কারণ। শেয়ারহোল্ডারদের পূর্ণসহযোগিতা থাকলে লভ্যাংশের এ ধারা ভবিষ্যতেও অব্যাহত থাকবে।

তিনি আরও বলেন, কোম্পানির ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের একাগ্রতা এবং সেবার কারণেই সম্ভব হয়েছে।  ইউনিক হোটেল ২০১৫ সালে ২১০ কোটি টাকার অপারেটিং মুনাফা করেছে। আর ২০১৬ সালের ৩০ জুন পর্যন্ত সময়ে ১০৪ কোটি টাকার অপারেটিং মুনাফা করেছে। এটি আমাদের আন্তরিকতা এবং গতিময় সেবার কারণেই সম্ভব হয়েছে। ওয়েস্টিন ঢাকা বাংলাদেশের মধ্যে শীর্ষ স্থানে রয়েছে। 

তিনি আরও বলেন, আমরা শুধু ওয়েস্টিন হোটেলের মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকতে চাই না। শেরাটনের কাজ এগিয়ে চলছে। ২০১৮ সালের মধ্যে আমরা শেরাটন চালু করতে পারব। যদিও ২০১৭ সালের মাঝামাঝিতে চালু হওয়ার কথা ছিল, তবে বিনিয়োগকারীদের অনুমোদন সাপেক্ষে আরও ১ বছর বাড়ানো হল।

তিনি বলেন, ওয়েস্টিন হোটেলের পাশের খোলা জায়াগাটাতে আমরা ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টার করার অনুমোদন লাভ করেছি। এছাড়া ওয়েস্টিন টু নামে নতুন একটি হোটেল খুলবে ইউনিক হোটেল অ্যান্ড রিসোর্টস লিমিটেড;  যেটি আন্তর্জাতিক হোটেল চেইন হায়াত হোটেল ও ওয়েস্টিন যৌথভাবে পরিচালনা করবে। নতুন হোটেলের জন্য গুলশানে জায়গা কেনা হয়েছে।

সভাপতির বক্তব্যে ইউনিক হোটেল অ্যান্ড রিসোর্টস লিমিটেডের চেয়ারপারসন সেলিনা আলী বলেন, মন্দা বাজারেরও ইউনিক হোটেল ভালো মুনাফা করেছে। ইউনিক হোটেল তার শক্ত অবস্থঅন ধরে রেখেছে। কোম্পানি উন্নয়ন অব্যাহত থাকবে বলে তিনি শেয়ারহোল্ডারদের জানান। 

প্রসঙ্গত, ইউনিক হোলেট ২০০০ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়। স্বল্প পরিসরে ২০০৭ সালের ১ জুলাই বাণিজ্যিকভাবে চালু হয়। চারবছরের মধ্যে দক্ষিণ পূর্ব এশিয়ার বিখ্যাত হোটেল হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। এজন্য রাষ্ট্রীয় অতিথি ছাড়াও আর্ন্তজাতিকভাবে গুরুত্বপূর্ণ অনেক অতিথি ও ব্যবসায়ীরা এই হোটেলে থাকতে আগ্রহী। 

এছাড়া সাধারণ সভায় কোম্পানীর আয় ব্যয় সম্পর্কিত আর্থিক বিবরনী ও উহার উপর নিরীক্ষকের প্রতিবেদনসহ পরিচালক মন্ডলীর প্রতিবেদন অনুমোদন দেওয়া হয়।
 

Print Friendly