Home আন্তর্জাতিক চীন-ভারত সৈন্যরা আবারও মুখোমুখি

চীন-ভারত সৈন্যরা আবারও মুখোমুখি

SHARE
NGIC-Logo
Beximco-Pharma
Ibn-Sina-Logo
chin-+varot
Staff reporter (s)

Published: আগস্ট ১২, ২০১৭ ১৭:৪৭:৪৯
666
0

পূর্বাঞ্চলীয় সিকিম সীমান্তের ডোকলাম উপত্যকায় চীন ও ভারতের সৈন্যরা আবারও পরস্পরের মুখোমুখি অবস্থান নিয়েছে। এই পরিস্থিতিতে অর্থাৎ চীনের সঙ্গে উত্তেজনার মধ্যেই এই সীমান্তে আরও সৈন্য পাঠিয়েছে ভারত। কয়েকটি সূত্রের উদ্ধৃতি দিয়ে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম এই তথ্যে জানিয়েছে। খবরে প্রকাশ ভারতীয় সেনাবাহিনী সিকিম ও অরুণাচল প্রদেশের ১ হাজার ৪০০ কিলোমিটার সীমান্তে মোতায়েন বাহিনীগুলোর মধ্যে ‘সতর্কতার মাত্রা’ বৃদ্ধি করেছে। এতে বলা হয়, চীনের আক্রমণাত্মক কথাবার্তা ও তৎপরতায় গুরুত্ব দিয়ে পরিস্থিতি সতর্কভাবে বিশ্লেষণ করছে নয়া দিল্লি।

নয়াদিল্লি ও সিকিমের অসমর্থিত দুটি সূত্র জানিয়েছে, সাবধানতা হিসেবে সামরিক বাহিনীর সতকর্তার মাত্রা বৃদ্ধি করা হয়েছে। সেপ্টেম্বর ও অক্টোবরে ওই সীমান্তে মোতায়েন ভারতীয় বাহিনীগুলোর সাধারণত সতর্কাবস্থায় থাকে, কিন্তু চলতি বছর পূর্বাঞ্চলীয় সেক্টরে কিছুটা আগেই ওই অবস্থা চালু করা হয়েছে।

এদিকে প্রকাশিত প্রতিবেদনগুলোর বিষয়ে কোনো কিছু জানাতে অস্বীকার করেছেন ভারতীয় সেনাবাহিনীর কর্মকর্তারা; তারা বলেছেন, কার্যক্রমের বিস্তারিত প্রকাশ করতে পারবেন না তারা। প্রায় ২ মাস আগে সিকিম সীমান্তের ডোকলাম মালভূমিতে চীনা সেনাবাহিনী রাস্তা নির্মাণের সময় সেখানে উপস্থিত হয়ে বাধা দেয় ভারতীয় সেনাবাহিনী। তারপর থেকে ওই সীমান্তে দুদেশের সেনাবাহিনী মুখোমুখি অবস্থান নিয়ে আছে।

ওই মালভূমিটিকে ডোংলাং বলে থাকে চীন। ডোংলাং মালভূমিকে নিজেদের অংশ দাবি করে সেখানে তাদের রাস্তা নির্মাণের পূর্ণ অধিকার আছে বলে দাবি করছে চীন। অন্যদিকে মালভূমিটি ভুটানের অংশ বলে দাবি করেছে ভারত ও ভুটান।

দিল্লি জানিয়েছে, ভারত, চীন ও ভুটানের ত্রিদেশীয় সীমান্তে রাস্তা বানানোর উদ্যোগ নিয়ে চীন স্থিতাবস্থা ক্ষুণ্ণ করছে এবং এটি গুরুতর নিরাপত্তা উদ্বেগ তৈরি করতে পারে বলে বেইজিংকে সতর্ক করেছে তারা। ওই উপত্যকায় সৃষ্ট অচলাবস্থার পর থেকে এ পর্যন্ত চীন ও ভারতের ৩০০ জন করে সৈন্য মাত্র কয়েকশ ফুট দূরে পরস্পরের মুখোমুখি অবস্থান নিয়ে আছে। শুক্রবার ভারতীয় সেনাবাহিনী জানিয়েছে, উত্তেজনা আরো বাড়বে বলে মনে করছেন না তারা।

BD-Lamp-Logo
Phonix-logo-270