Home আর্কাইভ পুঁজিবাজারের আচরণ স্থিতিশীল

পুঁজিবাজারের আচরণ স্থিতিশীল

SHARE
NGIC-Logo
Beximco-Pharma
Ibn-Sina-Logo
dse ‍a
Senior Staff Reporter (SM)

Published: আগস্ট ১১, ২০১৭ ১০:৪৪:০০
70
0

পুঁজিবাজার গতকাল ইতিবাচক ধারায় ফিরেছে। দুই কার্যদিবস দর সংশোধনের পর গতকাল সূচক ও লেনদেন বেড়েছে। লেনদেন বাড়ায় ঢাকা স্টক এ·চেঞ্জের (ডিএসই) বাজার মূলধন নতুন উচ্চতায় ওঠার রেকর্ড গড়ে। বিনিয়োগকারীদের আস্থা যে ধীরে ধীরে ফিরছে, তা বোঝা যাচ্ছে বর্তমান বাজারের গতিবিধি দেখে। কিছুদিন আগেই দেখা যেত সূচক বাড়তে শুরু করলে একটানা বেড়েই আবার পতন শুরু হতো। আর সেই পতনের যেন শেষ ছিল না।
 
সূচক একেবারে তলানিতে ঠেকার পর ঘুরে দাঁড়াতো। কিন্তু ইদানীং বাজারের এ আচরণে পরিবর্তন লক্ষ করা যাচ্ছে। সূচক দুই-তিন দিন ঊর্ধ্বমুখী হলেই আবার দু-একদিন সংশোধন হচ্ছে। এতে বাজার যে স্থিতিশীলতার দিকে এগোচ্ছে, তার ইঙ্গিত পাওয়া যাচ্ছে। গতকাল ডিএসইর প্রধান সূচক বেড়েছে ১১ পয়েন্ট। আর সূচকের উত্থানে ভ‚মিকা রেখেছে জিপি, লাফার্জ সুরমা, রূপালী ব্যাংক, ইবিএল,বার্জার পেইন্টস। গতকাল বিনিয়োগকারীরা ফের ব্যাংক খাতে বিনিয়োগ করায় এ খাত লেনদেনে নেতৃত্ব দেয়। এ খাতে কেনাবেচা হয় মোট লেনদেনের ২১ শতাংশ বা ১৯৭ কোটিটাকা। টায়ার-২ মূলধনি শর্ত বাস্তবায়নে গতকাল এ খাতের ইসলামী ব্যাংক ৫০০কোটি টাকা, ন্যাশনাল ব্যাংক ৪০০ কোটি টাকার ও আর্থিক খাতের লংকাবাংলাকে ৫০০ কোটি টাকার নন-কনভার্টেবল মুদারাবা সাব-অর্ডিনেট বন্ড ছাড়ার অনুমতি দেয় বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এ·চেঞ্জ কমিশন। ব্যাংক খাতের ৩০ কোম্পানির মধ্যে ১৮টি দরবৃদ্ধির ধারায় ছিল।
 
এরপর বস্ত্র খাতে ১৭ শতাংশ বা ১৫৯ কোটি টাকা লেনদেন হলেও এ খাতে দর সংশোধন হয়েছে। এ খাতের ৪৮টি কোম্পানির মধ্যে ৩৪টির দর কমেছে। সিঅ্যান্ডএ টে· লেনদেনের শীর্ষে থাকলেও শেয়ারটির দরে কোনো পরিবর্তন হয়নি।
 
প্রকৌশল খাতে লেনদেন হয়েছে ১৪ শতাংশ বা প্রায় ১৩৮ কোটি টাকা। কয়েক দিন ধরে দর বাড়াতে এ খাতও সংশোধনের ধারায় ছিল। গতকাল সবচেয়ে ইতিবাচক ছিল সিমেন্ট, যোগাযোগ ও ব্যাংক খাত। সিমেন্ট খাতের সাত কোম্পানির মধ্যে পাঁচটির দরবেড়েছে। যোগাযোগ খাতের জিপি ও সাবমেরিন কেব্ল্স দুটির দরই ইতিবাচক ছিল। সাবমেরিন কেব্ল্সের পরিচালনা পর্ষদ সভার তারিখ ঘোষণা করায় শেয়ারটির দর বেড়েছে তিন টাকা ৬০ পয়সা। লেনদেনে নেতৃত্ব দেওয়া কোম্পানিগুলোর মধ্যে সিঅ্যান্ডএ টে· ৬০ কোটি ৫০ লাখ টাকা, ফরচুন শুজ ৩৯ কোটি টাকা, ইফাদ অটোস ৩৪ কোটি, বিবিএস কেব্ল্স ৩৩ কোটি, সিটি ব্যাংক প্রায় ২৬ কোটি ও লংকাবাংলার ২৫ কোটি টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। দরবৃদ্ধির শীর্ষ পর্যায়ে থাকা ‘জেড’ ক্যাটাগরির সমতা লেদারের ৬ দশমিক৯২ শতাংশ ও প্রগেসিভ লাইফ ৬ দশমিক ৬৫ এবং ‘বি’ ক্যাটাগরির ফাইন ফুডসের দর বেড়েছে ৫ দশশকি ১০ শতাংশ। শেয়ার বিজ
BD-Lamp-Logo
Phonix-logo-270