Home আইন-আদালত খালেদা জিয়ার জামিন আবেদন নিষ্পত্তি দীর্ঘায়িত করেছেন ম্যাজিস্ট্রেট

খালেদা জিয়ার জামিন আবেদন নিষ্পত্তি দীর্ঘায়িত করেছেন ম্যাজিস্ট্রেট

খালেদা জিয়ার জামিন
Staff Reporter

Published: 12:38:36
51
0

image_pdfimage_print
ডেস্ক রিপোর্ট: গ্রেপ্তারি পরোয়ানা কার্যকর প্রতিবেদন গ্রহণের নামে সংশ্লিষ্ট ম্যাজিস্ট্রেট খালেদা জিয়ার জামিন আবেদনের নিষ্পত্তি অপ্রয়োজনীয়ভাবে দীর্ঘায়িত করেছেন। যেটা আদালতের প্রক্রিয়ার অপব্যবহারের শামিল। মিথ্যা তথ্য দিয়ে জন্মদিন পালনের অভিযোগে দায়ের করা মানহানির মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার জামিন আবেদন নিষ্পত্তি করে বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি সহিদুল করিমের হাইকোর্ট বেঞ্চ এই মন্তব্য করেছেন।
দুই বিচারপতির স্বাক্ষরের পর বুধবার ওই আদেশের পূর্ণাঙ্গ অনুলিপি প্রকাশিত হয়। ম্যাজিস্ট্রেট (হাকিম) আদালতের আদেশ পর্যালোচনা করে হাইকোর্ট বলেছেন, আমাদের বলতে দ্বিধা নেই যে, সংশ্লিষ্ট ম্যাজিস্ট্রেট অভিযুক্তের (খালেদা জিয়ার) হাজিরা পরোয়ানা কার্যকরসহ জামিন আবেদন নিষ্পত্তির ক্ষেত্রে ভুল পথে পরিচালিত হয়েছেন। যেখানে অন্য একটি মামলায় অভিযুক্ত কারাগারে আছেন উল্লেখ করে আবেদন দাখিল করে হাজিরা পরোয়ানা ইস্যু করতে এবং একই সঙ্গে জামিন চেয়েছেন, সেখানে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা কার্যকর করার প্রতিবেদন আসার কোনো প্রয়োজনীয়তা নেই। এর পরেও হাজিরা পরোয়ানা ইস্যু করতে এবং জামিনের জন্য করা আবেদন নথিজাত করে গ্রেপ্তারি পরোয়ানার আদেশ কার্যকর করার প্রতিবেদনের জন্য পরবর্তী তারিখ ২৭ জুলাই ধার্য করে সংশ্লিষ্ট ম্যাজিস্ট্রেট বড় ধরনের ভুল করেছেন।

মিথ্যা তথ্য দিয়ে জন্মদিন পালনের অভিযোগে ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক গাজী জহিরুল ইসলাম ২০১৬ সালের ৩০ আগস্ট খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে মামলাটি করেন। এ মামলায় খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে ২০১৬ সালের ১৭ নভেম্বর গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করে ঢাকা মহানগর হাকিম আদালত। এরপর গত ২৫ এপ্রিল এ মামলায় খালেদা জিয়ার পক্ষে হাজিরা পরোয়ানা ইস্যু করতে এবং একই সঙ্গে জামিন চেয়ে আবেদন করেন তার আইনজীবীরা। কিন্তু গত ১৭ মে ঢাকা মহানগর হাকিম খুরশিদ আলম খালেদা জিয়ার আবেদন নথিজাত করে তার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা কার্যকরের আদেশ তামিলের জন্য ৫ জুলাই পরবর্তী দিন ধার্য করেন।

এ অবস্থায় খালেদা জিয়ার আইনজীবীরা তার জামিন চেয়ে হাইকোর্টে আবেদন করেন। গত ৩১ মে খালেদা জিয়ার জামিন আবেদন নিষ্পত্তি করে বিচারতি এম. ইনায়েতুর রহিমের নেতৃত্বাধীন হাইকোর্ট বেঞ্চ ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম এবং সংশ্লিষ্ট হাকিমকে নথিজাত করে রাখা খালেদা জিয়ার আবেদন দ্রুততার সঙ্গে নিষ্পত্তি করতে বলেন।

গতকাল ওই আদেশের কপিতে বিচারপতিরা স্বাক্ষর করেন। সর্বশেষ হাইকোর্ট আরও বলেছেন, সংশ্লিষ্ট ম্যাজিস্ট্রেটকে মনে রাখতে হবে এই মামলার মতো একটি কম্পেইন মামলায় যেখানে অভিযুক্ত জানিয়েছেন যে, তিনি অন্য মামলায় ইতোমধ্যে কারাগারে আছেন, সেক্ষেত্রে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা কার্যকর প্রতিবেদনের জন্য অপেক্ষা করার কোনো প্রয়োজনীয়তা নেই।

এ আদেশের ব্যাপারে খালেদা জিয়ার আইনজীবী খন্দকার মাহবুব হোসেন বলেছেন, বেশ কয়েকটি মামলায় হাজিরা পরোয়ানা বা গ্রেপ্তারি পরোয়ানা তামিল হয়নি, সে কারণে জামিন আবেদনের শুনানি না করে নিম্নআদালত আবেদন নথিজাত করেছে। হাইকোর্টের এই আদেশের কারণে এখন আর সেটা করতে পারবে না। হাজিরা পরোয়ানা ও গ্রেপ্তারি পরোয়ানা তামিল হোক আর না হোক অন্য মামলায় কারাগারে আছে উল্লেখ করে জামিন আবেদন দাখিল করলে তা নিষ্পত্তি করতে হবে। সূত্র: আমাদের সময় 

আরও পড়ুনঃ কণ্ঠশিল্পী আসিফের রিমান্ড-জামিন নামঞ্জুর, কারাগারে প্রেরণ

Print Friendly, PDF & Email

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.