Home bd news দক্ষিণ আফ্রিকার প্রেসিডেন্ট জুমাকে সরানোর সিদ্ধান্ত

দক্ষিণ আফ্রিকার প্রেসিডেন্ট জুমাকে সরানোর সিদ্ধান্ত

juma
দক্ষিণ আফ্রিকার প্রেসিডেন্ট জ্যাকব জুমা
Staff reporter (s)

Published: 11:44:41
72
0

image_pdfimage_print

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ দক্ষিণ আফ্রিকার প্রেসিডেন্ট জ্যাকব জুমাকে প্রেসিডেন্টের পদ থেকে সরানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে তার দল আফ্রিকান ন্যাশনাল কংগ্রেস (এএনসি)। যদিও সরে দাঁড়াতে অস্বীকৃতি জানিয়েছেন জুমা। ২০০৯ সাল থেকে নেতৃত্ব দিলেও দুর্নীতির নানা অভিযোগ ঝুলছে জ্যাকব জুমার মাথার ওপর। ক্ষমতাসীন এএনসি প্রেসিডেন্ট জুমাকে সরে দাঁড়ানোর আহ্বান জানালেও এখন পর্যন্ত জুমা সরে দাঁড়াননি।

বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়, প্রেসিডেন্ট জুমা স্বেচ্ছায় সরে না দাঁড়ালে সংসদে আস্থা ভোটের মুখোমুখি পড়তে হতে পারে তাকে। আর এতে তিনি হেরে যেতে পারেন। এএনসি যদিও আনুষ্ঠানিকভাবে তাদের পরিকল্পনার কথা জানায়নি। কিন্তু দলের কয়েকটি সূত্র দেশটির স্থানীয় গণমাধ্যম এবং বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে এ তথ্য জানিয়েছে।

গত ডিসেম্বরে তার জায়গায় এএনসির নেতা হিসেবে সিরিল রামাফোসাকে বসানোর পর থেকেই চাপের মধ্যে রয়েছেন প্রেসিডেন্ট জুমা। তবে দলের পক্ষ থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে পদত্যাগের আহ্বান জানানোর পর প্রেসিডেন্ট জ্যাকব কোনো সাড়া দেবেন কিনা সে বিষয়টি এখনো পরিষ্কার নয়। ধারণা করা হচ্ছে, মঙ্গলবারের পরেই জ্যাকবকে আনুষ্ঠানিকভাবে পদত্যাগের আহ্বান জানাবে এএনসি।

মঙ্গলবার সকালে এএনসির নির্বাহী কমিটির বৈঠক হয়েছে। বৈঠক চলাকালে দেশটির উপ-রাষ্ট্রপতি রামাফোসা প্রেসিডেন্ট জুমার আবাসিক ভবনের যাওয়ার জন্য বৈঠক ত্যাগ করেন। এ সময় তিনি বলেন, যদি জুমা পদত্যাগ না করেন, তবে তাকে আবার আহ্বান জানানো হবে। পরে অবশ্য রামাফোসা বৈঠকে যোগ দেন। দুর্নীতির নানা অভিযোগ প্রেসিডেন্ট হিসেবে জ্যাকবের সব অর্জনকে ম্লান করে দিয়েছে, যদিও তিনি বরাবরই এসব অভিযোগ তীব্রভাবে অস্বীকারে করে আসছেন। এর আগে ২০১৬ সালে ব্যক্তিগত বাড়ির ওপর সরকারি অর্থ পরিশোধ করতে ব্যর্থ হওয়ায় দেশটির উচ্চ আদালত প্রেসিডেন্ট জ্যাকবের বিরুদ্ধে সংবিধান লঙ্ঘনের অভিযোগ এনে রুল জারি করেছিলেন।

এ ছাড়া গত বছর দেশটির সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ প্রতারণা, কালোবাজারি, মানি লন্ডারিং, অস্ত্র চুক্তিসহ ১৮টি দুর্নীতির অভিযোগে জ্যাকবের বিরুদ্ধে রুল জারি করা করে।
সম্প্রতি ভারতীয় বংশোদ্ভুত ধণাঢ্য গুপ্তা পরিবারের সঙ্গেও যোগসূত্র পাওয়া যায় প্রেসিডেন্ট জ্যাকবের। ওই পরিবারের বিরুদ্ধে সরকারকে প্রভাবিত করার অভিযোগ রয়েছে। এটাও জ্যাকবের জনপ্রিয়তা কমে যাওয়ার অন্যতম একটি কারণ বলে মনে করা হচ্ছে। যদিও জুমা ও গুপ্তা পরিবার অভিযোগ অস্বীকার করেছেন।

Print Friendly, PDF & Email