Home bd news উদ্‌যাপিত হলো আইসিএসবি’র বাৎসরিক বনভোজন-২০১৮

উদ্‌যাপিত হলো আইসিএসবি’র বাৎসরিক বনভোজন-২০১৮

Logo
Logo
Image
ICSBPicnic
Corporate Sangbad Sub Editor

Published: 19:23:38
116
0

Spread the love

মাহমুদ: কর্মজীবী মানুষ কর্মের ভারে অনেক সময় ন্যূজ হয়ে পড়েন। বছরের প্রতিটা দিন কাটে নানা রকম কর্ম ব্যস্ততায়। বিশ্রাম বা বিনোদন কোনটাই এ সময় প্রাপ্তিতে যোগ হয় না। একইভাবে পরিবারের ছোট সদস্য যাঁরা সারাবছর স্কুলের ভারী ব্যাগ কাঁধে চাপিয়ে স্কুলে যাওয়া, স্কুল শেষে বাসায় ফিরে হাউজ টিউটর, হোম ওয়ার্ক, ক্লাশ ওয়ার্কের যাতাকলে নূন্যতম বিনোদনের ফুসরত খুব একটা পাওয়া হয় না। এছাড়াও বাড়ির গৃহিনীর একগুয়েমী থেকে একটি দিনের নির্মল অবসর বছরের বাকি দিনগুলোর জন্য প্রেরণা হিসেবে দেখা দেয়। যান্ত্রিক এ জীবনাচরণে সামান্য অবসর, কিঞ্চিত বিনোদন অনেক বেশি মূল্যবান, স্বস্তিদায়ক মনে হয়। ইনস্টিটিউট অব চাটার্ড সেক্রেটারিজ অব বাংলাদেশ (আইসিএসবি) প্রতিবছরের ন্যায় এবারও স্ব স্ব কর্মে সীমাহীন ব্যস্ত এই প্রতিষ্ঠানের সদস্যদের এবং তাঁদের পরিবারের জন্য আয়োজন করে বার্ষিক বনভোজন।

সকাল আটটায় যখন আইসিএসবি’র সদস্যরা পরিবারের সদস্যদের নিয়ে ইন্সটিটিউটে হাজির হন, তখন চেহারায় দেখা দেয় আনন্দের ঝিলিক। ঢাকার অদূরে রূপগঞ্জের পূর্বাচলে সি সেল রিসোর্ট এ বনভোজনে অংশগ্রহণকারী প্রতিটি সদস্যদের আন্দোলিত মুখায়ব স্পষ্ট হয়ে দেখা দেয়। বিশেষ করে শিশুরা খেলার জায়গা, গাছ গাছালিঘেরা পরিবেশে মেতে উঠে আনন্দ আর উচ্ছ্বাসে। বড়রা জমে তোলেন গল্পের আড্ডা।

প্রায় সাড়ে ছয় শতাধিক ব্যক্তির অংশগ্রহণে আয়োজিত বনভোজনের উদ্বোধন করেন ইনষ্টিটিউটের প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ সানাউল্লাহ এফসিএস। এ সময় উপস্থিত ছিলেন সদ্য সাবেক প্রেসিডেন্ট মো. আসাদ উল্লাহ এফসিএস সহ অন্যান্য কাউন্সিলর ও সদস্যগণ। অন্যান্য কাউন্সিলারদের মধ্যে যার নিরালস প্রচেষ্টা, সমন্বয় ও সহযোগিতায় বার্ষরিক এই আয়োজন শান্তিপূর্ণ ও সফলভাবে সম্পূর্ণ করা সম্ভব হয়েছে, তিনি হচ্ছেন সেলিম আহমেদ এফসিএস, যিনি পালন করেছেন পিকনিক কমিটির আহবায়কের দায়িত্ব।

 সারাদিনের আয়োজনের মধ্যে বড়-ছোটদের জন্য বিভিন্ন খেলার আয়োজন ছিল আনন্দের বাড়তি খোরাক। ছিল র‌্যাফেল ড্র। সবার অংশগ্রহণে জমে উঠে গান, বাজনা ও নাচের আসর। আনন্দময় এই মিলনক্ষণে আইসিএসবি’র সকল কাউন্সিল সদস্য উপস্থিত থাকলে তা আরো পূর্ণতা পেতো বলে মনে করেন অংশগ্রহণকারীরা।

যান্ত্রিকতা থেকে একদিনের অবসরের সময়টা খুব দ্রুত যেন শেষ হয়ে যায়। পশ্চিমাকাশে হলদে আভায় বিদায়ের সুর বেজে উঠে। ভেঙে যায় এক আনন্দময় মিলনমেলার। যবনিকাপাত হয় এক বর্ণিল আনন্দময় দিনের। আগামীতে আবারো এমন দিনে আইসিএসবি’র সকল কাউন্সিল সদস্য উপস্থিত থাকবেন এমন আয়োজনের প্রত্যাশায় বিদায় নেন সবাই।


Spread the love
Tallu sinniping mills
Logo