27 C
Dhaka
অগাস্ট ৫, ২০২০
Latest BD News – Corporate Sangbad | Online Bangla NewsPaper BD
অর্থ-বাণিজ্য

বেসরকারি ঋণ প্রবৃদ্ধির লক্ষ্যমাত্রা অপরিবর্তিত রেখে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের মুদ্রানীতি ঘোষণা

নিজস্ব প্রতিবেদক : চলতি ২০২০-২১ অর্থবছরের মুদ্রানীতি ঘোষণা করলো কেন্দ্রীয় ব্যাংক। এই অর্থবছরের জন্য বেসরকারি খাতে ঋণ প্রবৃদ্ধির লক্ষ্যমাত্রার কোন পরিবর্তন করা হয়নি। আগের বছরের সাথে মিল রেখেই বেসরকারি খাতে ঋণ প্রবৃদ্ধি নির্ধারণ করা হয়েছে ১৪.৮ শতাংশ।

আজ বুধবার (২৯ জুলাই) দুপুরে বাংলাদেশ ব্যাংকের ওয়েবসাইটে মুদ্রানীতির এই প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়েছে। করোনার কারণে এবার সংবাদ সম্মেলন ছাড়া শুধু ওয়েবসাইটে মুদ্রানীতি প্রকাশ করা হল।

বাংলাদেশ ব্যাংক আগে প্রতি ৬ মাসের আগাম মুদ্রানীতি ঘোষণা করলেও গত অর্থবছর থেকে তা এক বছরের জন্য করা হয়।

কেন্দ্রীয় ব্যাংক গত অর্থবছর বেসরকারি খাতে ১৪.৮০ শতাংশ ঋণ বাড়ানোর লক্ষ্যমাত্রা ধরলেও অর্জিত হয়েছে মাত্র ৮.৬১ শতাংশ। এ হার যে শুধু করোনা ভাইরাসের প্রভাবে কমেছে, তা নয়। গত অর্থবছরের শুরু থেকে ঋণ প্রবৃদ্ধি ছিল কমতির দিকে।

মুদ্রানীতি ঘোষণায় লিখিত বক্তব্যে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের গভর্নর ফজলে কবির বলেন, করোনা ভাইরাস মহামারিতে বিপর্যস্ত অর্থনীতি পুনরুদ্ধার এবং সরকার কর্তৃক নির্ধারিত অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি অর্জনের জন্য প্রয়োজনীয় নতুন বিনিয়োগ জোরদারকরণে বেসরকারি খাতে ১৪.৮ শতাংশ ঋণ প্রবৃদ্ধি পর্যাপ্ত হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। গভর্নর বলেন, চলতি ২০২০-২১ অর্থবছরের জন্য মুদ্রানীতির মূল লক্ষ্য হলো চলমান করোনা ভাইরাসজনিত মহামারির কারণে ক্ষতিগ্রস্ত অর্থনীতিকে পুনরুদ্ধার করা এবং সরকার কর্তৃক নির্ধারিত অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি এবং মূল্যস্ফীতির লক্ষ্যমাত্রাকে সামনে রেখে আর্থিক খাতের সার্বিক ব্যবস্থাপনা নির্ধারণ করা।

২০২০-২১ এর মুদ্রানীতি সম্প্রসারণমূলক ও সংকুলানমুখী উল্লেখ করে গভর্নর জানান, মুদ্রানীতির মূল কাজ হলো মূল্যস্ফীতিকে নিয়ন্ত্রণে রেখে অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ডকে স্বাভাবিক অর্থাৎ কোভিড-১৯ পূর্ববর্তী অবস্থায় ফিরিয়ে আনা।

প্রবৃদ্ধির এবং মূল্যস্ফীতির লক্ষ্যমাত্রাকে দুটির যোগফল থেকে প্রাপ্ত বাজারমূল্যে জিডিপি প্রবৃদ্ধির লক্ষ্যমাত্রা দাঁড়ায় ১৩.৬ শতাংশ। এর সাথে অর্থের আয় গতির পরিবর্তন সমন্বয় করে ব্যাপক মুদ্রা সরবরাহের প্রয়োজনীয় প্রবৃদ্ধি নির্ধারণ করা হয় ১৫.৬ শতাংশ।

২০২০-২১ অর্থবছরে বৈদেশিক লেনদেন খাতের সম্ভাব্য গতিধারা বিবেচনা করে ব্যাপক মুদ্রা সরবরাহের অন্যতম উপাদান ব্যাংক ব্যবস্থার নিট বৈদেশিক সম্পদের প্রবৃদ্ধি নির্ধারণ করা হয়েছে ৫.৮ শতাংশ, যা গত অর্থবছরের তুলনায় অনেক কম।

এ অর্থবছরে নিট বৈদেশিক সম্পদের প্রবৃদ্ধি তুলনামূলকভাবে কম হওয়ার সম্ভাবনা থাকলেও সম্প্রসারণমূলক ও সংকুলানমুখী মুদ্রানীতি ভঙ্গির কারণে নিট অভ্যন্তরীণ সম্পদ বৃদ্ধির সম্ভাবনা রয়েছে। সে হিসাবে মোট অভ্যন্তরীণ ঋণ প্রবৃদ্ধির লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে ১৯.৩ শতাংশ। এর মধ্যে সরকারি ঋণের প্রবৃদ্ধির লক্ষ্য ঠিক করা হয়েছে ৪৪.৪ শতাংশ এবং বেসরকারি খাতে ঋণ প্রবৃদ্ধির প্রাক্কলন করা হয়েছে ১৪.৮ শতাংশ। তবে গত অর্থবছরে এর লক্ষ্যমাত্রা অর্জন হয়েছে মাত্র ৮.৬০ শতাংশ। কেন্দ্রীয় ব্যাংক বলছে, বেসরকারি খাতে ঋণ প্রবৃদ্ধি সরকারি খাতের তুলনায় কম দেখালেও টাকার অংকে বেসরকারি খাতের জন্য প্রক্ষেপিত মোট ঋণের পরিমাণ সরকারি খাতের তুলনায় অনেক বেশি হবে।


আরো খবর »

এমিরেটস ৬৮টি গন্তব্যে ফ্লাইট পরিচালনা করবে

Tanvina

প্রাইজবন্ডের ১০০তম ড্র অনুষ্ঠিত, ১ম পুরস্কার ০৯০৭৪৮৫

Tanvina

বন্যা দুর্গতদের জন্য এক লাখ ইউরো সহায়তা দিচ্ছে ইইউ

Tanvina