31 C
Dhaka
মে ২৫, ২০২০
Latest BD News – Corporate Sangbad | Online Bangla NewsPaper BD
আর্কাইভ শিরোনাম শেয়ার বাজার

স্টক একচেঞ্জ বন্ধ থাকায় তথ্য পাচ্ছে না বিনিয়োগকারীরা

বিশেষ প্রতিবেদক : কোভিড-১৯ এর ব্যাপকভাবে বিস্তার প্রতিরোধে জনসমাবেশ এড়িয়ে চলতে ও সামাজিক দুরত্ব অনুসরণ করতে বলা হয়েছে। আর এ কারনেই পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত কোম্পনি গুলোকে ডিজিটাল প্লাট ফর্মে (ভার্চূয়াল) মিটিং করার নির্দেশ দেয় বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ এন্ড একচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)। কিন্তু স্টক একচেঞ্জ বন্ধ থাকায় বিএসইসির নির্দেশনার বাস্তবায়ন হচ্ছে না ফলে ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছেন বিনিয়োগকারীরা।

গত ২৪ মার্চ বিএসইসি’র এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয় বাংলাদেশে কোভিড-১৯ এর ব্যাপকভাবে বিস্তার প্রতিরোধে জনসমাবেশ এড়ানো ও সামাজিক দুরত্ব অনুসরণ করার লক্ষে এবং বিএপিএলসি ও কিছু কিছু তালিকাভুক্ত কোম্পানির আবেদনের প্রেক্ষিতে, তালিকাভূক্ত কোম্পানিসমূহের বার্ষিক সাধারন সভা, বিশেষ সাধারন সভা ও পরিচালনা পর্ষদের সভা (লিষ্টিং রেগুলেশনস ও অন্যান্য সিকিউরিটিজ আইনের বিভিন্ন বিধান পরিপালনের বাধ্যবাধকতা থাকায়) সাময়িকভাবে ডিজিটাল প্লাটফর্ম ব্যবহার করে উক্ত সভা সমূহ অনুষ্ঠানের বিষয়ে কমিশন একটি আদেশ অনুমোদন করেছে।

বিএসইসি’র আদেশে বলা হয়েছে, স্টক একচেঞ্জের তালিকাভুক্ত কোম্পানিসমূহের বার্ষিক সাধারন সভা, বিশেষ সাধারন সভা ও পরিচালনা পর্ষদের সভা এবং প্রাইস সেনসেটিভ ইনফরমেশনসহ ও  অন্যান্য বিষয় সম্পাদনের জন্য ডিজিটাল প্লাটফর্ম ব্যবহার করে উক্ত সভা সমূহ পরিপালন করতে পারবে।

আর  ডিজিটাল প্লাটফর্ম ব্যবহার করে  বার্ষিক সাধারন সভা, বিশেষ সাধারন সভা ও পরিচালনা পর্ষদের সভা ইত্যাদি সম্পন্ন করার পর সেগুলির হার্ডকপি বা সফট কপি সংরক্ষন করতে হবে যাতে পরবর্তিতে তাদের কাছে চাহিবা মাত্র  কোম্পানিগুলো তাদের রেকর্ড গুলো বিএসইসি বা স্টক একচেঞ্জকে দাখিল করতে পারে।

এছাড়া বিএসইসি উভয় স্টক একচেঞ্জকে তাদের আদেশ সব লিস্টেড কোম্পানিকে জানিয়ে দিতে এবং তাদের ওয়েবসাইটেও প্রকাশ করতে বলেছে। কিন্তু যেহেতু উভয় স্টক একচেঞ্জ বন্ধ সেহেতু বিএসইসির এ নির্দেশনা যথাযথভাবে পরিপালন হচ্ছে না। বিনিয়োগকারীদের সুবিধার জন্য বিএসইসির পক্ষ থেকে যে আদেশ দেয়া হয়েছে  স্টক একচেঞ্জ বন্ধ থাকায় সে সুবিধা থেকে বিনিয়োগকারীরা বঞ্চিত হচ্ছে। কেননা ঢাকা স্টক একচেঞ্জ (ডিএসই) ও চট্টগ্রাম স্টক একচেঞ্জ (সিএসই) বন্ধ থাকায় তাদের ওয়েবসাইটে কোন কোম্পানির হালনাগাদ তথ্য নেই ফলে বিনিয়োগকারীরা তাদের প্রয়োজনীয় তথ্য পাওয়ার অধিকার থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন এবং এতে তারা ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছেন।

বিএসইসি কোম্পনিগুলোকে ডিজিটাল প্লাটফর্ম ব্যবহার করে উক্ত সভা সমূহ পরিপালন করতে বলেছে কিন্তু বিনিয়োগকারীরা কিভাবে বোর্ড মিটিং এর তারিখ ও স্থান ইত্যাদি বিষয় অবগত হবে সে ব্যাপারে কোন দিক নির্দেশনা দেয়নি ফলে সভার ফলাফল যেমন; লভ্যাংশ ঘোষণা, প্রাইস সেনসেটিভ ইনফরমেশন এবং তালিকাভুক্ত কোম্পানিসমূহের বার্ষিক সাধারন সভা, বিশেষ সাধারন সভা বা মিটিং এর তারিখ ও স্থান ইত্যাদি বিষয় অবগত হবে সে ব্যাপারেও কোন দিক নির্দেশনা দেয়নি। ফলে তালিকাভুক্ত কোম্পানিসমূহের বার্ষিক সাধারন সভা, বিশেষ সাধারন সভা এবং বোর্ড মিটিং এর তারিখ ও স্থান ইত্যাদি বিষয় বিনিয়োগকারীরা অবগত হতে পারছেন না।

বিএসইসির নির্দেশনা মোতাবেক কোম্পানিগুলোর ভার্চূয়াল মিটিংয়ের ফলাফল বা তথ্য বিনিয়োগকারীদের কাছে পৌছাচ্ছেনা। ফলে বঞ্চিত হচ্ছে বিনিয়োগকারীরা। তাই বিনিয়োগকারীদের স্বার্থে স্টক একচেঞ্জ এর ওয়েবসাইট আপডেট করা উচিত বলে মনে করেন সংশ্লিষ্টরা।

যেহেতু ব্যাংক খোলা সেহেতু ব্যাংকের সাথে সমন্বয় করে স্টক একচেঞ্জকেও সীমিত আকারে খোলা রাখার ব্যবস্থা করা হলে বিনিয়োগকারীরা উপকৃত হবে। তাই বিনিয়োগকারীদের স্বার্থে স্টক একচেঞ্জ এর ওয়েবসাইটে তালিকাভুক্ত কোম্পানিসমূহের নিউজ গুলি পাবলিসের ব্যবস্থা করা হলে বিনিয়োগকারীরা  সহজেই তাদের প্রয়োজনীয় কোম্পানি সংক্রান্ত তথ্য সম্পর্কে অবহিত হতে পারবেন আর বিএসইসির নির্দেশনাও পুরোপুরি বাস্তবায়িত হবে।

স্টক একচেঞ্জ এখন পুরোপুরি ডিজিটাল প্লাটফর্ম ব্যবহার করে, আর যেহেতু ব্যাংক খোলা সেহেতু ব্যাংকের সাথে সমন্বয় করে স্টক একচেঞ্জকেও সীমিত আকারে খোলা রাখার ব্যবস্থা করা হলে বিনিয়োগকারীরা উপকৃত হবে, কারন এমন অনেক বিনিয়োগকারী আছেন যাদের সকল বিনিয়োগ শেয়ার বাজারে রয়েছে, আর স্টক একচেঞ্জ বন্ধ থাকায় তারা বর্তমান লকডাউন অবস্থায় মানবেতর জীবন জাপন করছেন এবং সংসার চালাতে চরম বিপাকে পড়েছেন।

 

কর্পোরেট সংবাদ/টিডি


আরো খবর »

ঈদের নেই সেই আনন্দ

*

পবিত্র ঈদুল ফিতর আজ

উজ্জ্বল

অনির্দিষ্টকাল জনগণের আয়ের পথ বন্ধ রাখা সম্ভব নয় : প্রধানমন্ত্রী

উজ্জ্বল