হোম স্বাস্থ্য-লাইফস্টাইল মুখের দুর্গন্ধ দূর করার উপায় জেনে নিন

    মুখের দুর্গন্ধ দূর করার উপায় জেনে নিন

    সংবাদটি প্রকাশিত হয়েছে : at 1:55 pm
    126
    0
    মুখে দুর্গন্ধ

    ডেস্ক রির্পোট: মুখে দুর্গন্ধ? লজ্জায় কারও সামনে কথা বলতে পারছেন না? এ জন্য স্বাভাবিক কথাবার্তায়ও ভয় পাচ্ছেন? প্রতিকারে দিনে দু’বার ব্রাশ করার সঙ্গে সঙ্গে মাউথ ফ্রেশনার বা মাউথ ওয়াশ ব্যবহার করেও কোন কাজে আসছে না? সব সময় একটা ভিতিকর পরিস্থিতির মধ্যে কাটছে? আসলেই এটি একটি বড় সমস্যা। মুখের দুর্গন্ধ বিরক্তিকর একটি বিষয়।

    এই মুখে দুর্গন্ধ কেন হয়, তা নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে গবেষণা চলছে। সেসব গবেষণা থেকে একাধিক কারণ সামনে এসেছে। যেমন- মুখের ভেতরে ছত্রাক ও ফাঙ্গাসের কারণে ঘা (ক্যানডিজিস), দাঁতের ফাঁকে অথবা মুখের ভেতরে জমে থাকা খাদ্যকণা বা তার থেকে সৃষ্টি হওয়া ব্যাক্টেরিয়া, ডায়াবেটিস, লিভারের সমস্যা, কিডনির সমস্যা এ রকম একাধিক কারণে মুখে দুর্গন্ধ হতে পারে।

    বিশেষজ্ঞদের মতে, মুখের ভেতরে কলোনি তৈরি করে কিছু ব্যাকটেরিয়া। এগুলো যখনই সুযোগ পায় ক্ষতি করে দাঁতের, সেই সঙ্গে মুখে গন্ধ সৃষ্টি করে। তবে বাজারে কিছু পণ্য পাওয়া যায়, যা কিনে সকাল-বিকাল কুলি করলে কিছুটা ফল পাওয়া যায়। তবে সেসব পণ্যের দাম অনেক বেশি। কি এখন চিন্তায় পড়ে গেলেন?

    আরে চিন্তা কিসের! কিছু প্রকৃতিক উপাদান আছে, যেগুলো কাজে লাগিয়ে পাঁচ মিনিটের মধ্যে মুখের দুর্গন্ধ দূর করা সম্ভব। আসুন এ ব্যাপারে বিস্তারিত নিম্নে দেয়া হল-

    ১. লেবুর রস: মুখের গন্ধের কারণে যদি জীবন দুর্বিষহ হয়ে ওঠে, তা হলে নিয়মিত লেবুর রস পান করুণ। বেশ কিছু গবেষণায় দেখা গেছে লেবুর অন্দরে থাকা অ্যাসিডিক কনট্যান্ট, মুখ গহ্বরে বাসা বেঁধে থাকা জীবাণুদের মেরে ফেলে। ফলে খারাপ গন্ধের প্রকোপ কমতে একেবারেই সময় লাগে না। এক্ষেত্রে এক কাপ পানিতে ২ চামুচ লেবুর রস ফেলে পান করতে পারেন অথবা সেই পানি দিয়ে ভালো করে কুলকুচি করে ফেলেও দিতে পারেন।

    ২. নারিকেল তেল: এই তেলে উপস্থিত অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি উপাদান নিমিষে গন্ধ সৃষ্টি করা ব্যাকটেরিয়াদের মেরে ফেলে। ফলে মুখের গন্ধ দূর হতে সময় লাগে না। এক্ষেত্রে এক চামুচ নারিকেল তেল মুখে নিয়ে ভালো করে কুলি করুন। কম করে ৫ মিনিট করতে হবে। তার পর হালকা গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলতে হবে মুখটা।

    ৩. মৌরি: এতে রয়েছে অ্যান্টিবায়োটেরিয়াল প্রোপার্টিজ, যা মুখ গহ্বরে তৈরি হওয়া ব্যাকটেরিয়াগুলো মেরে ফেলে। ফলে দুর্গন্ধে বদলে যায় সুগন্ধে। যখনই মনে হবে মুখ থেকে গন্ধ বের হচ্ছে, এক মুঠো মৌরি নিয়ে চিবিয়ে নেবেন। তা হলে আর চিন্তা থাকবে না।

    ৪. বেকিং সোডা: শরীরের অন্দরে অ্যাসিড লেভেল ঠিক রাখার মধ্য দিয়ে মুখের দুর্গন্ধ দূর করতে বেকিং সোডা। তাই এ ধরনের সমস্যায় যদি ভুগে থাকেন, তা হলে প্রতিদিন এক গ্লাস পানিতে অল্প পরিমাণে বেকিং সোডা মিশিয়ে কুলকুচি করুন। দেখবেন দারুণ ফল পাবেন। এ ক্ষেত্রে বেকিং সোডা দিয়ে ব্রাশ করলেও কিন্তু একই উপকার পাওয়া যায়।

    ৫. এলাচ: এলাচ মুখে রেখে দিন। দেখবেন অল্প সময়ের মধ্যেই দুর্গন্ধ একেবারে কমে যাবে।

    ৬. মেথি বীজ: এক চামুচ মেথি বীজ নিয়ে পরিমাণমতো পানির সঙ্গে মিশিয়ে চুলায় ফোটান। তার পর বীজগুলো ছেঁকে নিয়ে সেই জল চায়ের মতো পান করুন। কয়েক দিন এমনটি করলে দেখবেন মুখের গন্ধ কমে গেছে।

    ৭. পুদিনাপাতা: একে প্রাকৃতিক মাউন্ট ফ্রেশনার বলা যেতে পারে। তাই মুখে গন্ধ হলে ২-৩টি পুদিনাপাতা নিয়ে চিবিয়ে ফেলুন।

    ৮. দারুচিনি: মুখের ভেতরে তৈরি হওয়া জীবাণু মেরে ফলতে দারুচিনির কোনো বিকল্প নেই। তাই মুখ থেকে গন্ধ বেরোলেই এক চামচ দারুচিনির পাউডারের সঙ্গে পরিমাণমতো পানি মিশিয়ে গরম করে নিন। তার পর সেই পানি ছেঁকে নিয়ে কুলকুচি করুণ। দেখবেন গন্ধ চলে যাবে।

    ৯. লবঙ্গ: এতে রয়েছে অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল প্রোপাটিজ, যা মুখে গন্ধ তৈরি করা ব্যাকটেরিয়াদের মেরে ফেলে। মুখে একটি লবঙ্গ নিয়ে চুসতে থাকুন। দেখবেন গন্ধ একেবারে চলে গেছে।

    ১০. অ্যাপেল সিডার ভিনিগার: এই প্রাকৃতিক উপাদানটির অন্দরে উপস্থিত একাধিক উপাকারী উপাদান মুখের দুর্গন্ধ দূর করতে বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে। সকালের নাস্তা, দুপুর ও রাতে খাওয়ার আগে অল্প পরিমাণে অ্যাপেল সিডার ভিনিগার নিয়ে এক গ্লাস পানিতে মিশিয়ে পান করতে হবে। এমনটি করলে একদিকে যেমন স্বাস্থ্যের উন্নতি ঘটবে, অন্যদিকে পেটের রোগ মাথা চাড়া দিয়ে ওঠার আশঙ্কাও হ্রাস পাবে। সূত্র বোল্টস্কাই।

    আরও পড়ুন:

    বর্ষায় কাপড়ের স্যাঁতস্যাঁতে গন্ধ আর ছত্রাক দূর করবে যেভাবে

    রং ফর্সা করা সামগ্রী ব্যবহারে কি কি ক্ষতি হয় জেনে নিন

    ক্যান্সারের কারণ হিসেবে মোটা শরীর কতটা দায়ী?