হোম তথ্য-প্রযুক্তি মহাকাশে বসত গড়বে ভারত

    মহাকাশে বসত গড়বে ভারত

    সংবাদটি প্রকাশিত হয়েছে : at 12:49 pm
    114
    0

    ডেস্ক রির্পোট: মাসখানেক পর চন্দ্রযান-২ পাড়ি দেবে চাঁদের উদ্দেশ্যে। তার আগেই মহাকাশে লড়াই জিততে আরও বড় পদক্ষেপের ভারতীয় পরিকল্পনা সামনে এল। ভারত নিজস্ব স্পেস স্টেশন তৈরি করতে চলেছে।গত বৃহস্পতিবার ISRO-র চেয়ারম্যান ড. কে শিভন এই ঘোষণা করেন। তিনি জানিয়েছেন, আগামী ৫-৭ বছরের মধ্যে ভারত মহাকাশে স্পেস স্টেশন তৈরি করে ফেলবে। ২০২২ সালে গগনযান কর্মসূচি সফলভাবে শেষ হওয়ার পরই এই স্পেস স্টেশন তৈরি শুরু হবে।

    প্রসঙ্গত, ২০০৯ সালে প্রথমবার চন্দ্রযান চাঁদে পাঠায় ISRO. তার দশ বছর ২০১৯-এ চাঁদে চন্দ্রযান-২ পাঠানোর পরিকল্পনা করেছে ভারতের মহাকাশ গবেষণা সংস্থা। বুধবার ISRO-র চেয়ারম্যান তা ঘোষণা করেন।

    তিনি জানান, আগামী ১৫ জুলাই রাত ২টো ৫১ মিনিটে চন্দ্রযান-২ পাড়ি দেবে চাঁদের উদ্দেশ্যে। সেপ্টেম্বরের ৬ অথবা ৭ তারিখ পৌঁছবে চন্দ্রযান-২। চাঁদে কোনও একটি দিনের শুরুতেই দ্বিতীয় চন্দ্রযানটি সেখানে পৌঁছবে।

    তার পর দিনভর সেখানে ওই চন্দ্রযান কাজ করবে। নানা ধরনের পরীক্ষামূলক কাজ সারবে বলে জানিয়েছেন ইসরোর চেয়ারম্যান ড. কে শিভন। ইসরোর তরফে জানানো হয়েছে, চন্দ্রযান-২ চাঁদে জল ও অন্যান্য খনিজ পদার্থ খুঁজবে। এই চন্দ্রযানে ১১টি পে লোডার থাকছে। তার মধ্যে ছ’টি ভারতের, তিনটি ইউরোপের ও দু’টি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের পে লোডার।

    চন্দ্রযান ২-য়ে রয়েছে তিনটি অংশ। অরবিটার, ল্যান্ডার ও রোভার। অরবিটার অংশটি নির্দিষ্ট কক্ষপথে চাঁদের চারিদিকে ঘুরবে। ল্যান্ডার অংশটি চাঁদের মাটি ছোঁবে। আর ল্যান্ডারের ভিতরে রয়েছে রোভার। ল্যান্ডার অবতরণ করলে তার ভিতর থেকে বেরিয়ে আসবে রোভার। পৃথিবী থেকে সংকেত পাঠিয়ে চাঁদের মাটিতে সেটিকে গাড়ির মতো চালাবেন ইসরোর বিজ্ঞানীরা।

    বুধবার বেঙ্গালুরুতে চন্দ্রযান-২য়ের ছবি প্রথমবার প্রকাশ্যে নিয়ে আসে ইসরো। এর প্রতিটি অংশের খুঁটিনাটি ছবির মাধ্যমে ইসরোর তরফে এদিন প্রকাশ্যে আনা হয়। সূত্র-জি নিউজ।

    আরও পড়ুন:

    সিলিকন ভ্যালি কেন প্রযুক্তিমুক্ত শৈশবের পক্ষে

    এবার ’টিক টক’ ভিডিও থেকে মিলবে টাকা আয়ের সুযোগ!