হোম আন্তর্জাতিক অনলাইন ডেটিংয়ে প্রতারণার শিকার ৬৩ শতাংশই নারী!

অনলাইন ডেটিংয়ে প্রতারণার শিকার ৬৩ শতাংশই নারী!

সংবাদটি প্রকাশিত হয়েছে : at 12:36 pm
120
0

ডেস্ক রিপোর্ট: প্রেমে ছ্যাঁকা খাওয়ার বিষয়টি হরহামেশাই শোনা যায়। এ ছাড়া অনলাইনে ডেটিং করতে গিয়েও ধরা খান অনেকে। এক পরিসংখ্যান বলছে, এভাবে যারা প্রেমে প্রতারণার শিকার হন তাদের বেশিরভাগই মেয়ে। প্রতারণার শিকার এসব ব্যক্তিরা প্রতিবছর গড়ে ১১ হাজার ১৪৫ পাউন্ড (বাংলাদেশি টাকায় ১২ লাখ) লোকসানের সম্মুখিন হন।

প্রতারণার শিকার ব্যক্তিদের মধ্যে ৬৩ শতাংশই নারী, যাদের গড় বয়স ৫০ বছর। রোববার ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির অনলাইন প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

Spellbit Limited

যুক্তরাজ্যভিত্তিক সেন্ট্রাল অ্যাকশন ফ্রড বিভাগ বলছে, অনলাইনে ডেটিংয়ের নামে ব্যক্তিগত তথ্য চুরি করে প্রতারকরা গত বছর ৫০ মিলিয়ন পাউন্ড (বাংলাদেশে টাকার হিসাবে ৫৪ কোটি) হাতিয়ে নিয়েছে। এসব অর্থ হাতিয়ে নেয়ার জন্য ব্যক্তিগত তথ্যকে হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করেছেন তারা।

আগামী ১৪ ফেব্রুয়ারি বিশ্ব ভালোবাসা দিবস। দিবসটির ঠিক চার দিন আগেই এ তথ্য প্রকাশ করল সেন্ট্রাল অ্যাকশন ফ্রড।

দেশটির পুলিশ বলছে, অনলাইন ডেটিং ওয়েবসাইট, অ্যাপস অথবা সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে ভুক্তভোগীরা এভাবে প্রতারণার শিকার হয়েছেন। প্রতারকচক্র ফেক প্রোফাইল বানিয়ে অনলাইনে ডেটিংয়ের নামে সম্পর্ক তৈরি করে প্রতারণা করছে।

সেন্ট্রাল অ্যাকশন ফ্রড প্রকাশিত এক তথ্য মতে, গত বছর ৪ হাজার ৫৫৫ জন এভাবে অনলাইনে ডেটিং করতে গিয়ে এভাবে প্রতারণার শিকার হয়েছেন। ওই বছর ডেটিংয়ে প্রতারণার শিকার ব্যক্তির সংখ্যা তার আগের বছর অর্থাৎ ২০১৭ সালের তুলনায় ২৭ শতাংশ বেশি। ধারণা করা হচ্ছে, সংখ্যাটা আরও বাড়তে পারে। কারণ অনেকেই এভাবে গোপনে প্রতারণার শিকার হলেও এ বিষয়ে মুখ খুলতে চান না।

সেন্ট্রাল অ্যাকশন ফ্রড বলছে, রোমাঞ্চ করতে গিয়ে প্রতারণার শিকার নারীদের সংখ্যা পুরুষদের তুলনায় দ্বিগুণ। পরিসংখ্যানে দেখা গেছে, প্রতারণার শিকার এসব ব্যক্তিদের মধ্যে ৬৩ শতাংশই নারী। তাদের গড় বয়স ৫০-এর ঘরে।

লন্ডন পুলিশের অর্থনীতিবিষয়ক অপরাধ বিভাগের প্রধান কমান্ডার ক্যারেন বাক্সটার। তিনি বলছেন, প্রতিবছর রোমাঞ্চ করতে গিয়ে প্রতারণার শিকার হওয়া ব্যক্তিদের সংখ্যা বেড়েই চলেছে। ফলে প্রতারণার শিকার এসব ব্যক্তিরা আবেগগত ও অর্থনৈতিক উভয় দিক দিয়েই ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন। তবে তারা যে আবেগগত দিক দিয়ে যে মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে এটা তাদের জীবনে বেশ প্রভাব ফেলছে।

এমতাবস্থায় কেউ যাতে এভাবে প্রতারণার শিকার না হতে পারেন সেজন্য সেন্ট্রাল অ্যাকশন ফ্রড কিছু পরামর্শও দিয়েছে।

তারা বলছে, অনলাইন প্রোফাইলে শুধু ছবি দেখেই কাউকে বিশ্বাস করা যাবে না। আবেগের বশে হুটহাট করে সম্পর্কে জড়িয়ে ব্যক্তিগত তথ্য শেয়ার করা উচিত হবে না।

আরো পড়ুন: বোনের প্রধানমন্ত্রীত্বের লড়াইয়ে নামার চেষ্টা ‘অনুচিত’: থাই রাজা