হোম জাতীয় আরো শক্তিশালী হলো বাংলাদেশের পাসপোর্ট

    আরো শক্তিশালী হলো বাংলাদেশের পাসপোর্ট

    সংবাদটি প্রকাশিত হয়েছে : at 11:57 am
    880
    0
    পাসপোর্ট

    কর্পোরেট সংবাদ ডেস্ক: বাংলাদেশের পাসপোর্ট এখন আরো শক্তিশালী হয়েছে। বৈশ্বিক পাসপোর্ট র‌্যাকিংয়ে আগের চেয়ে ৩ ধাপ এগিয়ে বাংলাদেশের পাসপোর্টের অবস্থান এখন ৯৭ তম। গত বুধবার এ তালিকা প্রকাশ করে যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক নাগরিকত্ব ও পরিকল্পনাবিষয়ক সংস্থা হ্যানলি অ্যান্ড পাসপোর্ট পার্টনার্স। বৈশ্বিক পাসপোর্ট সূচক ২০১৯–এর তালিকায় দেখা যায়, পাকিস্তান থেকে বাংলাদেশের পাসপোর্ট র‌্যাকিংয়ে এগিয়ে। বাংলাদেশের অবস্থান ৯৭তম। ২০১৮ সালে যা ছিল ১০০ তে। তবে পার্শ্ববর্তী দেশ ভারত বাংলাদেশ থেকে এগিয়ে ৭৯তম অবস্থানে আছে।

    কোনো দেশের পাসপোর্ট কতটা শক্তিশালী, তা নির্ভর করে ওই পাসপোর্ট দিয়ে কতটি দেশে ভিসা ছাড়াই যাওয়া যায় তার ওপর ভিত্তি করে। এখানে ভিসা ছাড়া যাওয়া বলতে বোঝায় ‘অন অ্যারাইভাল ভিসা’।

    Spellbit Limited

    শক্তিশালী পাসপোর্ট সূচকে বাংলাদেশের সঙ্গে আছে লেবানন, লিবিয়া ও দক্ষিণ সুদান। আর নিচে অবস্থান করছে নেপাল ৯৮তম, পেলেস্টাইন ৯৯তম, সুদান ৯৯তম, ইয়েমেন ১০১ তম, পাকিস্তান ১০২তম, সোমালিয়া ১০৩তম, সিরিয়া ১০৩তম, আফগানিস্তান ১০৪তম।

    তালিকার শীর্ষে থাকা জাপানের পাসপোর্ট বিশ্বের সবচেয়ে শক্তিশালী। ১৯০ দেশে ভিসা ফ্রি ও অন অ্যারাইভাল ভিসা সুবিধা পাচ্ছেন জাপানের পাসপোর্টধারীরা। দ্বিতীয় স্থানে আছে সিঙ্গাপুর ও দক্ষিণ কোরিয়ার পাসপোর্ট। এদের পাসপোর্টধারীরা অন অ্যারাইভাল ভিসা সুবিধা পাচ্ছেন ১৮৯টি দেশে। তৃতীয় স্থানে আছে ফ্রান্স ও জার্মানি। এই দুই দেশের পাসপোর্টধারীরা ১৮৮ দেশে ভিসা ফ্রি সুবিধা পাচ্ছেন।

    শক্তিশালী হলো বাংলাদেশের পাসপোর্ট

    চতুর্থ অবস্থানে আছে ডেনমার্ক, ফিনল্যান্ড, ইতালি ও সুইডেন। ১৮৭ দেশে ভিসা-ফ্রি এবং অন অ্যারাইভাল ভিসা সুবিধা পান এই চার দেশের পাসপোর্টধারী। লুক্সেমবার্গ ও স্পেন আছে পঞ্চম স্থানে।

    প্রসঙ্গত, বর্তমানে বাংলাদেশের পাসপোর্টধারীরা ৪১টি দেশে ভিসা ফ্রি সুবিধা পাচ্ছেন। অপরদিকে বিশ্বের ১৮৫টি দেশে যেতে বাংলাদেশিদের ভিসা প্রয়োজন হয়।

    যে দেশগুলোতে ভিসা ছাড়া বাংলাদেশের পাসপোর্টধারী যেতে পারেন:

    এশিয়ার ভুটান, ইন্দোনেশিয়া, মালদ্বীপ, নেপাল, শ্রীলঙ্কা এবং পূর্ব তিমুর।

    আফ্রিকার উগান্ডা, বেনিন, কেপ ভার্দে আইসল্যান্ড, কোমোরেস, দি জিবুতি, গাম্বিয়া, ঘানা, কেনিয়া লিসোথো, মাদাগাস্কার, মৌরিতানিয়া, মোজাম্বিক, রুয়ান্ডা, সিশিলিস, সোমালিয়া এবং টোগ।

    ক্যারিবিয়ান অঞ্চলে বাহামা, বার্বাডোজ, ব্রিটিশ ভার্জিন আইসল্যান্ড, ডোমেনিকা, গ্রানাডা, হাইতি, জ্যামাইকা, মন্টসারাত, সেন্ট কিটস এন্ড নেভিস, সেন্ট ভেনিস এন্ড গ্রানাডিস, ত্রিনিদাদ ও টোবাকো এবং আমেরিকায় বলিভিয়া।

    ওশেনিয়ার কুক আইসল্যান্ড ফিজি, মাইক্রোনেশিয়া, নিউয়ি, সামোয়া, ট্রুভালু, ভানুয়াতু। এর মধ্যে অন-অ্যারাইভাল ভিসা সুবিধা আছে ২০টি দেশে।

    আরও পড়ুন: 
    পছন্দের এপিএস পাবেন মন্ত্রিসভার সদস্যরা
    নতুন সংসদের প্রথম অধিবেশন ৩০ জানুয়ারি