হোম অর্থ-বাণিজ্য আমদানিকারকরা সুতা আমদানিতে পেলেন বাড়তি সুযোগ

আমদানিকারকরা সুতা আমদানিতে পেলেন বাড়তি সুযোগ

সংবাদটি প্রকাশিত হয়েছে : at 11:36 am
182
0
Suta

ডেস্ক রিপোর্ট: পোশাকশিল্পগুলোর বাকিতে সুতা আমদানির ঋণপত্র (এলসি) খোলার যে সুবিধা রয়েছে, তা আরও বাড়ানো হয়েছে। এর আগে আমদানিকারকরা বাকিতে সুতা আমদানির মূল্য পরিশোধে ১৮০ দিন সময় পেতেন। এখন তারা ২৭০ দিন পর্যন্ত সময় পাবেন। অর্থাৎ পণ্যর কাঁচামাল হিসেবে সুতা আমদানিতে শিল্পমালিকরা অর্থ পরিশোধে বাড়তি তিন মাস বা ৯০ দিন সময় পাচ্ছেন।

বাংলাদেশ ব্যাংকের বৈদেশিক মুদ্রানীতি বিভাগ এ বিষয়ে গতকাল এক প্রজ্ঞাপন জারি করেছে। সেখানে উল্লেখ করা হয়েছে, মূলত পোশাকশিল্পের ব্যাকওয়ার্ড লিংকেজ প্রতিষ্ঠানগুলোকে শক্তিশালী করতে এই সুবিধা দেওয়া হচ্ছে। তবে আমদানিকারক শিল্পোদ্যোক্তারা তাদের নিজস্ব কারখানার জন্য ব্যাক টু ব্যাক এলসির বিপরীতে আমদানি করতে পারবেন। বস্ত্র অধিদফতর থেকে অনুমোদিত কারখানার উৎপাদন ক্ষমতা বা গত ১২ মাসে ওই কারখানার উৎপাদিত পণ্যের মূল্যের সমান অথবা এ দুটির মধ্যে যেটি কম, সেটির চেয়ে বেশি সুতা আমদানি করা যাবে না।

Spellbit Limited

সাধারণত ডেফার্ড এলসির মেয়াদ ১৮০ দিন হয়। তবে সাময়িক সময়ের জন্য দেওয়া এই নির্দেশনায় সুতা আমদানির অতিরিক্ত ৯০ দিন মেয়াদে ডেফার্ড এলসি খুলতে দেওয়া হবে। এছাড়া ইউজেন্স বেসিস বা বায়ার্স ক্রেডিটের মাধ্যমে খোলা এসব এলসিতে ইডিএফ (রফতানি উন্নয়ন তহবিল) থেকে ঋণ নেওয়া যাবে। ইডিএফের সুদের হার ছয় শতাংশ হওয়ায় আমদানির খরচও কমবে বলে জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় ব্যাংকের কর্মকর্তারা। প্রজ্ঞাপনে আরও উল্লেখ করা হয়েছে, তবে ব্যাংকগুলো ৯০ দিনের জন্য আমদানি দায় মেটাতে অর্থায়ন করতে পারবে। পরবর্তী নির্দেশনা না দেওয়া পর্যন্ত এ সুবিধা অব্যাহত থাকবে।

আরও পড়ুন: ৬৫টি প্রতিষ্ঠানকে ২.৮৩ লক্ষ টাকা জরিমানা