হোম আর্কাইভ নতুন বছরের প্রথমার্ধেই উৎপাদনে আসছে জিপিএইচের অত্যাধুনিক প্লান্ট

নতুন বছরের প্রথমার্ধেই উৎপাদনে আসছে জিপিএইচের অত্যাধুনিক প্লান্ট

সংবাদটি প্রকাশিত হয়েছে : at 5:12 pm
166
0

কর্পোরেট সংবাদ ডেস্ক: অর্থনৈতিক অগ্রগতি ও ক্রমবর্ধমান চাহিদার পরিপ্রেক্ষিতে দেশে সর্বাধুনিক প্রযুক্তির ইস্পাত প্লান্ট নির্মাণ করছে জিপিএইচ ইস্পাত লিমিটেড। ২০১৯ সালের প্রথমার্ধেই সেখানে উৎপাদন শুরু করবে কোম্পানি। গতকাল চট্টগ্রামে অনুষ্ঠিত ১২তম বার্ষিক সাধারণ সভায় (এজিএম) কোম্পানির ব্যবস্থাপনা পরিচালক মুহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম শেয়ারহোল্ডারদের এ তথ্য দেন।

পাশাপাশি সব ব্যবসায়িক চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করে এগিয়ে যেতে ব্যয় নিয়ন্ত্রণ, পণ্যের মান ও গ্রাহকসেবায় ধারাবাহিক উন্নতি, আন্তঃপ্রাতিষ্ঠানিক সমন্বিত গবেষণা জোরদার করা এবং নিখুঁত সাপ্লাই ও ভ্যালু চেইন গড়ে তোলার পদক্ষেপও নিয়েছে কোম্পানি কর্তৃপক্ষ। পরিবেশবান্ধব শিল্পায়ন ও টেকসই উন্নয়নে নিজেদের প্রতিশ্রুতির কথাও শেয়ারহোল্ডারদের সামনে তুলে ধরেন তিনি। তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশের ইস্পাত শিল্পকে নতুন এক উচ্চতায় নিয়ে যাবে নির্মাণাধীন সর্বাধুনিক প্লান্টটি। এশিয়ায় জিপিএইচই প্রথম এক ছাদের নিচে এমন উচ্চপ্রযুক্তির ইস্পাত প্লান্ট স্থাপন করছে।

Spellbit Limited

গতকাল বেলা ১১টায় চট্টগ্রামের চিটাগং ক্লাবে অনুষ্ঠিত এজিএমে সভাপতিত্ব করেন প্রকৌশল খাতের তালিকাভুক্ত কোম্পানিটির পর্ষদ চেয়ারম্যান মো. আলমগীর কবির। শেয়ারহোল্ডারদের তিনি বলেন, জিপিএইচ ইস্পাত লিমিটেড উদ্ভাবনী ধারণায় বিশ্বাস করে এবং সব সময় তা কার্যকর করার চেষ্টা করে। কোম্পানির ভিশন হলো ‘আলোকবর্তিকা হয়ে বাংলাদেশের ইস্পাত খাতকে সমৃদ্ধ করা এবং দেশের ভবিষ্যৎ অবকাঠামো উন্নয়নে সহায়তা করা।’ এ সময় তিনি কোম্পানির প্রাতিষ্ঠানিক মূল্যবোধ ও প্রাতিষ্ঠানিক বিশ্বাসগুলো তুলে ধরেন। তিনি আরো বলেন, জিপিএইচ ইস্পাত এর মূল ব্যবসার শেকড়কে আরো গভীরে নিয়ে যাওয়ার পাশাপাশি দেশের ইস্পাত সংশ্লিষ্ট প্রান্তিক শিল্পগুলোর সুস্থ বিকাশ ও সুসংহতকরণে কাজ করে যাচ্ছে।

এজিএমে শেয়ারহোল্ডাররা কোম্পানির সার্বিক কার্যক্রমে সন্তুষ্টি প্রকাশ করে আগামীতে এর ধারাবাহিকতা অব্যাহত রেখে আরো বেশি লভ্যাংশ দেয়ার অনুরোধ করেন। ২০১৭-১৮ হিসাব বছরের নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন ও অন্যান্য এজেন্ডার পাশাপাশি তারা ১০ শতাংশ বোনাস শেয়ার দেয়ার প্রস্তাব অনুমোদন করেছেন।

সভায় কোম্পানির অতিরিক্ত ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. আলমাস শিমুল, পর্ষদ সদস্যদের মধ্যে মো. আশরাফুজ্জামান, মো. আবদুল আহাদ, মো. আজিজুল হক, স্বতন্ত্র পরিচালক এমএ মালেক, বেলায়েত হোসেন উপস্থিত ছিলেন। অভ্যন্তরীণ নিরীক্ষা উপদেষ্টা আরাফাত কামাল এফসিএ, প্রধান অর্থ কর্মকর্তা এইচএম আশরাফ উজ জামান এফসিএ, গ্রুপের নির্বাহী পরিচালক ও কোম্পানি সচিব আবু বকর সিদ্দিক এফসিএমএ, কোম্পানির নির্বাহী পরিচালক (এফঅ্যান্ডবিডি) কামরুল ইসলাম এফসিএ, নির্বাহী পরিচালক (প্লান্ট) প্রকৌশলী মাদানী এম ইমতিয়াজ হোসেনসহ কোম্পানির অনেক শীর্ষ কর্মকর্তাও সভায় অংশ নেন।

আরও পড়ুন: আজ ১৮ কোম্পানির এজিএম