হোম আইন-আদালত কলরেট বাড়ানো ও কলড্রপে চার্জের ওপর হাইকোর্টের নিষেধাজ্ঞা

কলরেট বাড়ানো ও কলড্রপে চার্জের ওপর হাইকোর্টের নিষেধাজ্ঞা

সংবাদটি প্রকাশিত হয়েছে : at 12:41 pm
256
0
বিএনপি

কর্পোরেট সংবাদ ডেস্ক: মোবাইল ফোনের কলরেট বাড়ানো ও কলড্রপে চার্জ কাটার ওপর নিষেধাজ্ঞা দিয়েছেন হাইকোর্ট। একই সঙ্গে মুঠোফোন ব্যবহারকারীদের অধিকার সুরক্ষায় বিবাদীদের ব্যর্থতা কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না, এই মর্মে রুল জারি করা হয়েছে।

এ ছাড়া অনাবশ্যক খুদে বার্তা পাঠানো কেন বন্ধ করা হবে না, তাও জানতে চাওয়া হয়েছে। পাশাপাশি মুঠোফোনের বর্তমান কলরেট পর্যালোচনার জন্য বিশেষজ্ঞদের সমন্বয়ে একটি কমিটি গঠনের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার বিচারপতি তারিক উল হাকিম ও বিচারপতি মো. সোহরাওয়ারদীর সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন। আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট ইশরাত হাসান। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল আমাতুল করিম।

Spellbit Limited

আগামী চার সপ্তাহের মধ্যে টেলিযোগাযোগ সচিব, বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনের (বিটিআরসি) চেয়ারম্যান, সেক্রেটারি, মুঠোফোন অপারেটর গ্রামীণফোন লিমিটেড, এয়ারটেল লিমিটেড, রবি আজিয়াটা লিমিটেড, বাংলালিংক লিমিটেড ও টেলিটক কর্তৃপক্ষকে রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।

এর মধ্যে দেশে গ্রাহক সংখ্যায় শীর্ষে থাকা গ্রামীণফোন কলড্রপের ক্ষেত্রেওশীর্ষে অবস্থান করছে। গত ১৩ মাসে এ অপারেটরের কল ড্রপ হয়েছে ১০৩ কোটি ৪৩ লাখ বার। একই সময়ে গ্রাহক সংখ্যায় দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা রবির কলড্রপ হয়েছে ৭৬ কোটি ১৮ লাখ বার। সক্রিয়তার বিবেচনায় গ্রামীণফোনের ৭ কোটি ৭ লাখ।

আইন সাংবাদিকদের সংগঠন ল’ রিপোর্টার্স ফোরামের সদস্য এম. বদিউজ্জামান, মেহেদী হাসান ডালিম, মুঠোফোন গ্রাহক অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি মহিউদ্দিন আহমদ ও সুপ্রিমকোর্টের আইনজীবী অ্যাডভোকেট রাশিদুল হাসান গত বুধবার জনস্বার্থে হাইকোর্টে রিট আবেদনটি করেন।

অ্যাডভোকেট ইশরাত হাসান বলেন, পার্শ্ববর্তী দেশগুলোর তুলনায় বাংলাদেশে মুঠোফোনের কলচার্জ বেশি।
তার পরও গ্রাহকদের মতামত না নিয়ে চলতি বছরের আগস্টে অতিরিক্ত কলরেট চাপিয়ে দেওয়া হয়েছে। যা গ্রাহকদের অধিকারের পরিপন্থী ও বেআইনী।

আরও পড়ুন: খালেদার আইনজীবীদের আদালতের ওপর অনাস্থা