হোম কর্পোরেট সুশাসন পলিসি ঝরে গেলেও টিকে আছে বিমা কোম্পানি

পলিসি ঝরে গেলেও টিকে আছে বিমা কোম্পানি

সংবাদটি প্রকাশিত হয়েছে : at 7:30 pm
99
0

মাহমুদ: প্রতিযোগিতামূলক বাজারে জীবন বিমা কোম্পানিগুলো গ্রাহকদের আকৃষ্ট করতে দিয়ে থাকে নানা রকম পলিসি। চটকদার এ সকল পলিসিতে গ্রাহক আকৃষ্ট হলেও সময়ের সাথে সাথে ঝরে যেতে থাকে পলিসিগুলো। সত্তর শতাংশ থেকে শতভাগ পলিসি ঝরে যাওয়ার নজির সৃষ্টি হলেও কোম্পানিগুলো ঠিকই টিকে আছে।

বিষয়টি নিয়ে খোদ নিয়ন্ত্রণকারী সংস্থাও বিপাকে পড়েছে। কারণ, এ সকল কোম্পানির প্রথম প্রান্তিকের পলিসি শতভাগ ঝরে গেলে তারা দ্বিতীয় প্রান্তিকে নতুন করে পলিসি চালু করে। দ্বিতীয় প্রান্তিকের পলিসিগুলো আগের মতোই ঝরে গেলে দেখা যায় তৃতীয় প্রান্তিকে নতুন করে পলিসি চালু করতে। কিন্তু কাজের কাজ কিছুই হয় না। সকল পলিসিই একে একে ঝরে যায়। এ সময় অনেক কোম্পানি পলিসিগুলো তামাদি হিসেবে ঘোষণা করে-যা সম্পূর্ণভাবে গ্রাহকের স্বার্থ পরিপন্থী।

Spellbit Limited

যদিও ব্যর্থতার বৃত্তে আবর্ত থেকে কোম্পানিগুলো দোষ চাপিয়ে দিচ্ছে গ্রাহকদের ওপর। অথচ এমন অনেক জীবন বিমা কোম্পানি আছে, যারা অনুমোদন পাওয়ার পাঁচ বছর পরও ব্যবসায়িকভাবে শক্ত অবস্থানে যেতে পারেনি। এক্ষেত্রে এসকল কোম্পানির কর্মকর্তাদের কোম্পানি পরিচালনার সক্ষমতা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। বর্তমানে নতুন-পুরাতন অনেক কোম্পানিতে এমন অবস্থা বিরাজ করছে। এ সকল প্রতিষ্ঠানের অদুরদর্শী পলিসি, অদক্ষ জনবল, দুর্বল ব্যবস্থাপনাকে দায়ি করছেন বিশেষজ্ঞরা। তাঁরা বলছেন, কিছু কিছু কোম্পানির এমন অদক্ষতার কারণে ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছেন জীবন বিমা গ্রাহকেরা। আর এ বিষয়টিই ভাবিয়ে তুলেছে নিয়ন্ত্রণকারী সংস্থাকেও।

বর্তমানে পলিসি ঝরে পড়ার হার রীতিমতো অস্বাভাবিকভাবে বেড়ে চলেছে। কিন্তু কার্যকর কোন পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে না বলে জানিয়েছে ভুক্তভোগীরা। এ ধারা অব্যাহত থাকলে জীবন বিমা খাত থেকে হয়তো গ্রাহকেরা মুখ ফিরিয়ে নিবে। আর এ অবস্থার তৈরি হলে তখন গোটা জীবন বিমা খাত মুখ থুবরে পড়বে।

বিষয়টি গুরুত্বের সাথে বিবেচনায় নিয়ে বিমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ (আইডিআরএ) পলিসি ঝরে যাওয়া কোম্পানির কাছে ব্যাখ্যা চেয়ে চিঠি দিয়েছে। জানা গেছে, কোম্পানি যদি সন্তোষজনক জবাব দিতে না পারে সেক্ষেত্রে কর্তৃপক্ষ পরবর্তীতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিবে।

জীবন বিমা গ্রাহকদের স্বার্থ সুরক্ষায় আইডিআরএকে অবশ্যই কঠোর পদক্ষেপ নিতে হবে। বন্ধ করতে হবে পলিসি ঝরে পড়ার প্রবণতা। এক্ষেত্রে কোম্পানিগুলোকে আরো সতর্কতার সাথে সময়োপযোগী পলিসি চালু করার ওপর গুরুত্বারোপ করতে হবে। আস্থা অর্জন করতে হবে জীবন বিমা গ্রাহকদের। তা না হলে সম্ভাবনাময় এ খাত থেকে মুখ ফিরিয়ে নিবে বিনিয়োগকারীরা, যা দেশের অর্থনীতির জন্য নেতিবাচক হিসেবে বিবেচ্য হবে।

আরো পড়ুন: বিমাখাতের উন্নয়নে নতুন কৌশলে ‘আইডিআরএ’