তথ্য ছাড়াই বেড়েছে পাঁচ কোম্পানির শেয়ার মূল্য
কর্পোরেট সংবাদ
প্রকাশকালঃ ২০১৭.০১.০৭ ১৬:২২:২৯

শেয়ারদরে অস্বাভাবিক উল্লম্ফনের কারণে সর্বশেষ সপ্তাহে নোটিস পেয়েছে তালিকাভুক্ত পাঁচ কোম্পানি। নোটিসের মাধ্যমে দর বাড়ার পেছনে মূল্য সংবেদনশীল তথ্য প্রকাশ হয়েছে কি না, তা জানতে চেয়েছে (ডিএসই)। তবে নোটিসের জবাবে ইফাদ অটোস, বিডি অটোকারস, জিপিএইচ ইস্পাত, ইস্টার্ন লুব্রিক্যান্টস ও সোনারগাঁও টেক্সটাইল লিমিটেড অপ্রকাশিত মূল্য সংবেদনশীল তথ্য নেই বলে জানিয়েছে।

ইফাদ অটোস: প্রকৌশল খাতের এ কোম্পানির শেয়ারদর বাড়ছে। এর আগে গত ১১ ডিসেম্বর ইফাদ অটোসের শেয়ারদর ছিল ৮৯ টাকা ৫০ পয়সা। সর্বশেষ কার্যদিবসে (৪ জানুয়ারি) ওই শেয়ার ১০৭ টাকা ১০ পয়সায় লেনদেন হয়েছে। এ সময়ে কোম্পানিটির শেয়ারদর বেড়েছে ১৭ টাকা ৬০ পয়সা বা ১৯ দশমিক ৬৬ শতাংশ।

বিডি অটোকারস: প্রকৌশল খাতের এ কোম্পানির শেয়ারদর গত বছরের ২৭ ডিসেম্বর ছিল ৭৪ টাকা ২০ পয়সা। সর্বশেষ কার্যদিবসে (৪ জানুয়ারি) ওই শেয়ার লেনদেন হয়েছে ৮৯ টাকা ১০ পয়সায়। এ সময়ে কোম্পানিটির শেয়ারদর বেড়েছে ১৪ টাকা ৯০ পয়সা বা ২০ দশমিক ০৮ শতাংশ।

জিপিএইচ ইস্পাত: প্রকৌশল খাতের এ কোম্পানির শেয়ারদর গত ৬ ডিসেম্বর ছিল ৩১ টাকা ২০ টাকা। সর্বশেষ কার্যদিবসে (৪ জানুয়ারি) ওই শেয়ার লেনদেন হয়েছে ৩৮ টাকা ১০ পয়সায়। এ সময়ে কোম্পানিটির শেয়ারদর বেড়েছে ছয় টাকা ৯০ পয়সা বা ২২ দশমিক ১২ শতাংশ।

ইস্টার্ন লুব্রিক্যান্টস: বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাতের ওই কোম্পানিটির শেয়ারদর গত ১১ ডিসেম্বর ছিল ৯২৯ টাকা ২০ পয়সা। সর্বশেষ কার্যদিবসে (৪ জানুয়ারি) ওই শেয়ার লেনদেন হয়েছে এক হাজার ২৯০ টাকা ২০ পয়সায়। এ সময়ে কোম্পানিটির শেয়ারদর বেড়েছে ৩৬১ টাকা বা ৩৮ দশমিক ৮৫ শতাংশ।

সোনারগাঁও টেক্সটাইল: বস্ত্র খাতের এ কেম্পানিটির শেয়ারদর গত ১১ ডিসেম্বর ছিল ৯ টাকা ২০ পয়সা। সর্বশেষ কার্যদিবসে (৪ জানুয়ারি) ওই শেয়ার লেনদেন হয়েছে ১২ টাকা ৫০ পয়সায়। ওই সময়ে কোম্পানিটির শেয়ারদর বেড়েছে তিন টাকা ৩০ টাকা বা ৩৫ দশমিক ৮৭ শতাংশ।

ডিএসই সূত্রে জানা গেছে, গত কয়েক কার্যদিবস ধরেই ওই পাঁচ কোম্পানির শেয়ারদর অস্বাভাবিক হারে বাড়ছে। যে কারণে কোম্পানিগুলোর কাছে দর বাড়ার কারণ জানতে চায় ডিএসই।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *