বদলে ফেলুন বিরক্তিকর আচরণ
কর্পোরেট সংবাদ
প্রকাশকালঃ ২০১৭.০১.১১ ১৯:৩৭:৪৪

সমাজে এমন অনেক ব্যক্তি আছেন, যাদের আচরণে বিরক্ত হন তাদের আশপাশের মানুষ। তারা তাদের বিরক্তিকর কাজগুলো নিজের মতো করে যান। তারা বোঝেন না যে, কাজগুলো কতটা বিরক্তিকর অন্য মানুষের কাছে।

প্লেন বা বাসের সিটে বসে আছেন খুব আয়েশ করে। কিন্তু আপনার ধরণ এমন যে, পাশের কিংবা সামনে ও পেছনের সিটের যাত্রীরা বিরক্ত হচ্ছেন।

একজন কম্পিউটারে কোনো কাজ করছেন, তখন যদি আপনি এসে পেছনে যদি দাড়িয়ে থাকেন, তাহলে যিনি কম্পিউটারে কাজ করছেন তিনি বিরক্ত হচ্ছেন। ।

সিনেমায় কী হচ্ছে না হচ্ছে, সেগুলো জোরে জোরে আপনি সিনেমা হলে বলতে থাকলে পাশের লোক বা সঙ্গীর বিরক্তির কারণ হয়।

অনেক সময় কোনো কিছুর জন্য লাইনে দাড়িয়ে থাকলে কেউ কেউ আছেন অন্যের শরীরের সঙ্গে ঘেষে দাড়াতে পছন্দ করেন। আপনি যতই বিরক্ত হোন না কেন, তিনি এভাবেই দাড়িয়ে থাকবেন।

কেউ কথা বলছে কিছুক্ষণ পরপর যদি আপনি বলতে থাকেন ‘কী?’ তাহলে সে প্রতিক্রিয়া দেখাবেই, তখন তো বিরক্তি লাগবেই। একবার-দুবার হলে ঠিক আছে। প্রতিবারই এমনটা করতে থাকলে আপনি নিশ্চয়ই তার সঙ্গে কথা বলার আগ্রহ হারিয়ে ফেলবেন।

আপনি নিজের ঘরে ঢুকে খুব জোরে শব্দ করে দরজা আটকিয়ে দিলেন, তখন অন্যরা খুবই বিরক্ত হবে।

হঠাৎ করে আপনার গায়ে কফি পরে গেল কিংবা সিঁড়ি থেকে নামতে গিয়ে আপনি পড়ে গেলেন। তখন আপনাকে সাহায্য করা তো দূরের কথা, উল্টো কেউ একজন হাসতে শুরু করল। এ ধরনের আচরণ খুবই বিরক্তিকর।

যখন অজানা কোনো মানুষের দিকে একটানা আপনি তাকিয়ে থাকবে, তখন ভালো লাগার থেকে অস্বস্তিই বেশি লাগবে। আর এটা বিরক্তকরও বটে।

যখন কেউ সঙ্গীকে সময় দেওয়ার বদলে নিজের স্মার্টফোনকে বেশি সময় দেয়, তখন বিরক্তির পাশাপাশি আফসোসও কাজ করে।

আপনি কোনো সমস্যায় পড়লে যখন কেউ বলে, ‘আমি আগেই বলেছিলাম, এটা করার দরকার নেই’। তখন আপনার বিরক্তির পরিমাণ কয়েকগুণ বেড়ে যাবে।

নিজের বিরক্তিকর আচরণ বদলে ফেলুন, দেখবেন অন্যরা আপনার সাথে বিরক্তিকর আচরণ করবেন না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *