হোম কর্পোরেট সংবাদ চার্টার্ড সেক্রেটারি প্রফেশনকে বিনিয়োগ সুরক্ষায় আরো সম্পৃক্ত করা হবে: বিএসইসি কমিশনার

চার্টার্ড সেক্রেটারি প্রফেশনকে বিনিয়োগ সুরক্ষায় আরো সম্পৃক্ত করা হবে: বিএসইসি কমিশনার

সংবাদটি প্রকাশিত হয়েছে : at 1:34 pm
1097
0
চার্টার্ড সেক্রেটারি

নিজস্ব প্রতিবেদক: বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্চ কমিশন (বিএসইসি) এর কমিশনার প্রফেসর মো. হেলাল উদ্দিন নিজামী বলেছেন, পুঁজিবাজারে বিনিয়োগকারীদের সুরক্ষায় চার্টার্ডা সেক্রেটারি প্রফেশনের সদস্যদের পর্যায়ক্রমে সম্পৃক্ত করা হবে। কারণ, এ প্রফেশনের সদস্যদের বর্তমান ভূমিকা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। তাঁদের পেশাদারিত্ব পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত কোম্পানিতে কার্যকর ভূমিকা রাখছে।

গতকাল ২০ অক্টোবর, শনিবার ইনস্টিটিউট অব চার্টার্ড সেক্রেটারিজ অব বাংলাদেশ (আইসিএসবি) এর উদ্যোগে কর্পোরেট গর্ভনেন্স কোড-২০১৮ এর আলোকে বিনিয়োগকারী সুরক্ষা বিষয়ক বিয়াম মিলনায়তনে আয়োজিত ওয়ার্কসপে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

Spellbit Limited

তিনি বলেন, চার্টার্ড সেক্রেটারি প্রফেশনকে পর্যায়ক্রমে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত কোম্পানিসমূহে গুড গর্ভনেন্স প্রতিষ্ঠায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালনের জন্য আরো সুদৃঢ় ও নিজেদেরকে আরো যোগ্যতাসম্পন্ন হিসেবে গড়ে তুলতে হবে।

আইসিএসবি’র প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ সানাউল্লাহ এফসিএস এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বিএসইসি’র নির্বাহী পরিচালক এম. হাসান মাহমুদ। এর আগে অনুষ্ঠানে উদ্বোধনী বক্তব্য রাখেন আইসিএসবি’র সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট শাফিয়ার রহমান এফসিএস।

মূল প্রবন্ধের উপর প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিএসইসি’র পরিচালক আবুল কালাম। এ সময় তিনি কর্পোরেট গর্ভনেন্স কোড-২০১৮ এর উপর বিস্তারিত আলোচনা করেন।

অনুষ্ঠানের মুক্ত আলোচনায় ও প্রশ্ন-উত্তর পর্বে অংশ নেন শাফিয়ার রহমান এফসিএস, গোপাল চন্দ্র দেবনাথ এফসিএস, সেলিম আহমেদ এফসিএস, তৌহিদুল আশরাফ এফসিএস, এস. আব্দুর রশীদ এফসিএস, খন্দকার হাবিবুজ্জামান এফসিএস, মো. মনোয়ার হোসেন এফসিএস, রাজা মাহমুদুল হক এসিএস, মো. শরিফ হাসান এসিএস, আমিনুল ইসলাম এসিএস, বিভূতি ভূষণ এসিএস, নেয়ামুল হক এসিএস এবং মোহাম্মদ আবদুল্লাহ আল মামুন এফসিএস।

এ পর্বের মুক্ত আলোচনায় উপস্থিত সদস্যদের মধ্যে ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনায় চার্টার্ড সেক্রেটারি প্রফেশনকে কীভাবে আরো কাজের সুযোগ তৈরি করে দেয়া যায়, কাজের পরিধি বৃদ্ধি করা যায়, কোম্পানি সমূহে তাঁদের দায়িত্বশীল ভূমিকা রাখা যায়, প্রতিটি প্রতিষ্ঠানে কোম্পানি সেক্রেটারি নিয়োগ বাধ্যতামূলক করার পাশাপাশি কোম্পানি সেক্রেটারির যোগ্যতা হিসেবে আইসিএসবি সদস্যদের বাধ্যতামূলকভাবে নিয়োগ দেয়া, কমপ্লাইন্স অডিটর প্যানেল তৈরি করা, কমপ্লাইন্স অডিটের ক্ষেত্রে শুধুমাত্র প্র্যাকটিসিং চার্টার্ড সেক্রেটারিদের নির্দিষ্ট করে দেয়া, ব্যাংক, ইন্স্যুরেন্স, লিজিং কোম্পানির ক্ষেত্রে বিএসইসি এর কর্পোরেট গর্ভনেন্স কোড পরিপালনে বাধা সহ কর্পোরেট গর্ভনেন্স কোডের সম্ভাবনা এবং অসুবিধার বিষয়গুলি উঠে আসে।

প্রশ্নকারীদের প্রশ্নের উত্তরে বিএসএসি কমিশনার সাত বছর আগের চিত্র তুলে ধরে বলেন, আগের চেয়ে দক্ষতা, মেধা ও পেশাদারিত্বের দিক থেকে অনেক সাফল্য আপনারা অর্জন করেছেন। আশা করছি, আগামী দুই থেকে পাঁচ বছরের মধ্যে এরই ধারাবাহিকতায় যোগ্যতাবলে আপনারা বিএসএসি’র সকল কর্মকান্ডে সম্পৃক্ত থাকবেন।

তিনি আরো বলেন, একবারে সকল দাবি-দাওয়া পরিপালন সম্ভব না। আপনাদের পেশাগত দক্ষতা বৃদ্ধি এবং অধিক সংখ্যক প্র্যাকটিসিং ফার্ম প্রতিষ্ঠিত হলে বিএসইসি সব সময় সার্বিক সহযোগিতা নিয়ে পাশে থাকবে।

কমিশনার বলেন, কর্পোরেট গর্ভনেন্স কোড পরিবর্তন করা যাবে না, এমন না। যেকোন সময় প্রয়োজনের নিরিখে আমরা সময়োপযোগী নোটিফিকেশনের মাধ্যমে আপনাদের চাওয়া আমরা পূরণ করতে পারবো।

এক প্রশ্নের জবাব তিনি বলেন, ব্যাংক, বিমা ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের জন্য সংশ্লিষ্ট বিভাগীয় নির্দেশাবলী থাকলেও কোম্পানি পরিচালনার ক্ষেত্রে বিএসইসি’র কর্পোরেট গর্ভনেন্স কোড পরিপালন বাধ্যতামূলক।

তিনি আরো বলেন, কর্পোরেট গর্ভনেন্স কোড ভালোভাবে পর্যালোচনা করলে দেখবেন যে, আমরা সেখানে সেক্রেটারিয়াল অডিট অন্তর্ভূক্ত করেছি। পর্যায়ক্রমে চার্টার্ড সেক্রেটারি প্রফেশনকে আরো শক্তিশালী ও অংশগ্রহণমূলক পেশাদার হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। এ সময় তিনি বিএসইসি’র সাথে আইসিএসবি’র যোগাযোগ ও হৃদ্যতা বৃদ্ধির উপর গুরুত্বারোপ করেন।

অনুষ্ঠানে সমাপনী ভাষণ দেন সেলিম রেজা এফসিএস। কাউন্সিল সদস্য ও সাধারণ সদস্যের উপস্থিতি কম থাকলেও বিএসইসি’র কর্মকর্তাদের দুরদর্শিতায় অনুষ্ঠানটির সফল পরিসমাপ্তি ঘটে এবং অংশগ্রহণকারী সদস্যরা সমগ্র অনুষ্ঠানটি আগ্রহভরে উপভোগ করেন।

আরো পড়ুন:

দায়িত্ব পালনে ব্যর্থ প্রতিষ্ঠানের নিবন্ধন বাতিল: খায়রুল হোসেন