Home কর্পোরেট সংবাদ টেলিভিশন উৎপাদনে আরো ১০ মিলিয়ন ডলার বিনিয়োগ করছে ওয়ালটন

    টেলিভিশন উৎপাদনে আরো ১০ মিলিয়ন ডলার বিনিয়োগ করছে ওয়ালটন

    Published:October 11, 2018
    ওয়ালটন


    Published: 17:13:41
    46
    0

    নিজস্ব প্রতিবেদক:
    উচ্চমানের পণ্য এবং সর্বোত্তম বিক্রয়োত্তর সেবা দিয়ে গ্রাহকদের মন জয় করতে চায় ওয়ালটন। বিশ্বের প্রতিটি প্রান্তে ‘মেইড ইন বাংলাদেশ’ পণ্য পৌঁছে দিতে চায় তারা। দিনব্যাপী ওয়ালটন প্ল্যাজা ম্যানেজার কনফারেন্সে এসব তথ্য জানানো হয়। কনফারেন্সে বলা হয়, বিশ্বের সেরা মানের পণ্য তৈরিতে নিজস্ব কারখানায় টেলিভিশন উৎপাদনে আরো ১০ মিলিয়ন ডলার বিনিয়োগ করছে ওয়ালটন।

    আজ বৃহস্পতিবার (১১ অক্টোবর, ২০১৮) রাজধানীর ওয়ালটন করপোরেট অফিসে ‘মিট দ্য প্লাজা ম্যানেজারস অ্যান্ড একচেঞ্জ ভিউ ২০১৮’ শীর্ষক দিনব্যাপী ওই কনফারেন্স অনুষ্ঠিত হয়। এতে সারা দেশের বিভিন্ন জোন থেকে আসা ওয়ালটনের নিজস্ব বিক্রয়কেন্দ্রের তিন শতাধিক ম্যানেজার বা ব্যবস্থাপক অংশ নেন।

    সকালে প্রধান অতিথি হিসেবে বেলুন উড়িয়ে কনফারেন্সের উদ্বোধন করেন ওয়ালটন গ্রুপের পরিচালক এস এম মাহবুবুল আলম। বিশেষ অতিথি ছিলেন ওয়ালটন হাই-টেক ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের চেয়ারম্যান এস এম নুরুল আলম রেজভী, ভাইস-চেয়ারম্যান এস এম শামসুল আলম, ওয়ালটন ডিজি-টেক ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের চেয়ারম্যান এস এম রেজাউল আলম, ওয়ালটন গ্রুপের পরিচালক জাকিয়া সুলতানা, তাহমিনা আফরোজ তান্না এবং রাইসা সিগমা হিমা।

    এ সময় অন্যদের মধ্যে বক্তৃতা করেন ওয়ালটন বিপণন বিভাগের প্রধান সমন্বয়ক ইভা রিজওয়ানা, এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর এমদাদুল হক সরকার, নজরুল ইসলাম সরকার, এসএম জাহিদ হাসান, হুমায়ূন কবির, মোহাম্মদ রায়হান, আশরাফুল আম্বিয়া, কর্নেল (অব.) এসএম শাহাদাত আলম, উপদেষ্টা মেজর জেনারেল (অব.) একেএম মুজাহিদ উদ্দীন, ডেপুটি এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর উদয় হাকিম, সিনিয়র অপারেটিভ ডিরেক্টর গোলাম মুর্শেদ, অপারেটিভ ডিরেক্টর ফিরোজ আলম প্রমুখ। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন চিত্রনায়ক আমিন খান।

    কনফারেন্সে পণ্যের উচ্চমান নিশ্চিতকরণ এবং দ্রুত বিক্রয়োত্তর সেবা পৌছে দেয়ার অঙ্গীকার করে ওয়ালটন কর্তৃপক্ষ। সেইসঙ্গে ইউরোপ আমেরিকাসহ বিশ্বের প্রতিটি প্রান্তে ওয়ালটন পণ্য রপ্তানির প্রস্তুতি চলছে বলেও জানানো হয়।

    ‘আমরা সেরা ছিলাম, আমরা সেরা আছি, আমরা সেরা থাকব’ এই শ্লোগানে প্লাজা ম্যানেজারগণ পণ্য বিক্রয়ে নিজেদের ছাড়িয়ে যাওয়ার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন। ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ ইলেকট্রনিক্স পণ্য বিপণনের আধুনিক চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় প্রয়োজনীয় দিক নির্দেশনা দেয়।

    ওয়ালটন হাই-টেক ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের চেয়ারম্যান এসএম নুরুল আলম রেজভী বলেন, ওয়ালটন শুধু বাংলাদেশেরই নয়, বরং সারা বিশ্বের। এটি এখন আন্তর্জাতিক ব্র্যান্ড। সর্বাধুনিক প্রযুক্তিতে উন্নতমানের কাঁচামাল ব্যবহার করে বিশ্বমানের পণ্য উৎপাদন করছে ওয়ালটন। ফ্রিজের বাজারে ওয়ালটন অপ্রতিদ্বন্দ্বী। টেলিভিশন উৎপাদন খাতে আরো ১০ মিলিয়ন ডলার বিনিয়োগ করা হচ্ছে। উদ্দেশ্য, বিশ্বের শীর্ষ মানের পণ্য তৈরি।

    ভাইস চেয়ারম্যান এস এম শামসুল আলম বলেন, ক্রেতাদের সেরা পণ্য ও সেবা দিয়ে আসছে ওয়ালটন। যার ফলে দেশ বিদেশের অসংখ্য পুরস্কার ও পদকে ভূষিত হয়েছে ওয়ালটন। প্রতিবছর বাণিজ্যমেলায় ভ্যাট প্রদানে ওয়ালটন শীর্ষে। সম্প্রতি জাতীয় পরিবেশ পদক এবং এক্সপোর্ট এক্সিলেন্স অ্যাওয়ার্ডে ভূষিত হয়েছে ওয়ালটন।

    প্রধান অতিথির বক্তব্যে এস এম মাহবুবুল আলম বলেন, সব ক্রেতাই সমান গুরুত্বপূর্ণ। উন্নতমানের পণ্য ও সেবা দিয়ে ক্রেতাদের সন্তুষ্টি অর্জনই প্রধান লক্ষ্য। এজন্য প্লাজা ম্যানেজারদের আরো আন্তরিক হতে হবে। তিনি প্লাজা ম্যানেজারদের আধুনিক বিপণন কলাকৌশলের বিভিন্ন বিষয় নিয়ে গুরুত্বপূর্ণ দিক-নির্দেশনা দেন।

    ওয়ালটন প্লাজা সেলস অ্যান্ড ডেভেলপমেন্টের প্রধান কর্মকর্তা মোহাম্মদ রায়হান বলেন, ৩১ বছর আগে ওয়ালটন নামে যে বীজ রোপিত হয়েছিল, ২০১৮ সালে এসে তা মহীরূহে পরিণত হয়েছে। ওয়ালটন আমাদের গর্বের, ওয়ালটন আমাদের অহংকারের। আমরা স্বপ্ন দেখি সেইদিন বেশি দূরে নয়, যখন বাংলাদেশে বিদেশি কোনো কোম্পানির পণ্যই ওয়ালটনের কাছে দাঁড়াতে পারবে না।

    অনুষ্ঠানে বিভিন্ন জোনের সেরা প্লাজা ম্যানেজারদের পুরস্কৃত করা হয়। সবশেষে ছিলো মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

    আরো পড়ুন: গত বছরের চেয়ে ৪০ শতাংশ বেশি ফ্রিজ বিক্রি করেছে মার্সেল