হোম কর্পোরেট সুশাসন ভৌতিক বিলের কবলে নগরবাসী

ভৌতিক বিলের কবলে নগরবাসী

সংবাদটি প্রকাশিত হয়েছে : at 9:01 pm
757
0
dhaka-currebt-bill

নিজস্ব প্রতিবেদক: রাজধানী ঢাকার বিভিন্ন এলাকায় নগরবাসী ভৌতিক বিলের কবলে পড়ে নানা ভাবে হয়রানীর শিকার হচ্ছে। ব্যবহারের তুলনায় বেশি বিল দেয়া ও আদায় করা হচ্ছে বলে একাধিক ব্যক্তি অভিযোগ করেছেন।

অনেক এলাকার গ্রাহকেরা এ প্রতিবেদকের কাছে অভিযোগ করেন যে, তারা গত কয়েক মাস ধরে যে বিদ্যুৎ বিল পাচ্ছে তা অস্বাভাবিক। এবং পূর্বের তুলনায় অনেক বেশী।

Spellbit Limited

ঘটনার সত্যতা পাওয়া পায় যায়, রাজধানীর রামকৃষ্ণ মিশন রোডের একটি বহুতল ভবনের বিভিন্ন ফ্ল্যাটে দেয়া বিদ্যুৎ বিল দেখে। গত মে মাসে যেখানে সমাগ্রিক ভাবে বিদ্যুৎ বিল এসেছিল ৪০ হাজার টাকা। সেখানে জুন মাসে বিলের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ৫১ হাজার টাকা। অর্থাৎ আগের মাসের তুলনায় ১১ হাজার টাকা বেশি। জুলাই মাসে বিলের পরিমাণ আরও ৫ হাজার টাকা বেড়ে করা হয় ৫৬ হাজার টাকা।

এরূপ বিল বাড়ার কারণে ভবনের মালিকেরা স্থানীয় বিদ্যুৎ অফিসে যোগাযোগ করলে তারা বলেন, বিল যেহেতু হয়ে গেছে সেহেতু বিল পরিশোধ করতেই হবে। ডিজিটাল মিটারে কোন সমস্যা আছে কিনা তা দেখার আশ্বাস দেন বিদ্যুৎ অফিসের লোকজন।

অনুসন্ধানে দেখা গেছে, শুধু ঐ ভবনেই নয়, নগরের মিরপুর, মোহাম্মাদপুর, রামপুরা, পুরান ঢাকার লক্ষীবাজার, গেন্ডারিয়া সহ আরও বিভিন্ন এলাকার বাসিন্দাদের অনেক গ্রাহককেই জুলাই মাসে তাদের অতিরিক্ত বিল পরিশোধ করতে হয়েছে।

ডিপিডিসি’র তথ্য মতে, প্রতিটা বাসাবাড়িতে প্রতি মাসেই বিদ্যুৎ মিটারের রিডিং নেয়ার বাধ্যবাদকতা থাকলেও কিছু অসাধু কর্মচারী তারা তাঁদের ইচ্ছামত রিডিং বসিয়ে দেন।

নিয়মিত রিডিং না দেখার ফলে গ্রাহকেরা নিয়মিত বিল পান না। কর্তৃপক্ষের কিছু অসাধু ব্যক্তি তাদের ইচ্ছে মত দুই মাসের বিল একত্রে দেয়। এ নিয়েও ভোগান্তিতে পড়তে হয় গ্রাহকদের।

current-meter

যোগাযোগ করা হলে ডিপিডিসি কর্তৃপক্ষ কর্পোরেট সংবাদকে জানান, পোস্ট মিটারের পরিবর্তে গ্রাহকদের প্রি-পেইড মিটার দেয়া হলে এ সমস্যা আর থাকবে না। তখন গ্রাহক নিজেই রিডিং দেখে অনলাইনে বা মোবাইলের মাধ্যমে বিল পরিশোধ করতে পারবেন।

এ বিষয়ে যোগাযোগ করা হলে ডিপিডিসি’র ব্যবস্থাপনা পরিচালক কর্পোরেট সংবাদকে বলেন, এখন যে মিটার ব্যবহৃত হচ্ছে তা থেকে পর্যাপ্ত সুযোগ-সুবিধা পাওয়া যাবে না। স্মার্ট মিটার ব্যবহারে গ্রাহকরা সয়ংক্রিয় পদ্ধতিতে অনেক সুবিধা পাবেন এবং গ্রাহকদের বিলজনিত সমস্যাও থাকবে না।

আরও পড়ুন: 

ধনীরাই আরও বেশি ধনী হচ্ছে

ডেসটিনি’র ডেসটিনেশন; বর্তমান ও ভবিষ্যত !

ভার্চুয়াল ভাইরাস, ক্ষতিকর দিক ও প্রতিকার