Home কর্পোরেট সংবাদ অর্থনৈতিক অঞ্চলে বিনিয়োগে আগ্রহী সিঙ্গাপুরের ব্যবসায়ীরা

    অর্থনৈতিক অঞ্চলে বিনিয়োগে আগ্রহী সিঙ্গাপুরের ব্যবসায়ীরা

    Published:July 10, 2018
    সিঙ্গাপুরের ব্যবসায়ীরা


    Published: 16:09:02
    256
    0

    ডেস্ক রিপোর্ট: বাংলাদেশের অর্থনৈতিক অঞ্চলগুলোয় গভর্নমেন্ট টু গভর্নমেন্ট (জিটুজি) ভিত্তিতে বিনিয়োগের বিষয়ে আগ্রহ প্রকাশ করেছে সিঙ্গাপুর বিজনেস ফেডারেশন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আহ্বানে সাড়া দিয়ে গতকাল সিঙ্গাপুরের ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠনটির প্রতিনিধিরা বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চল কর্তৃপক্ষের (বেজা) কার্যালয়ে এক সভায় অংশ নেন। সেখানে তারা মিরসরাই অর্থনৈতিক অঞ্চলে বিনিয়োগের ব্যাপারে আগ্রহ দেখান।

    সম্প্রতি সিঙ্গাপুর সফরকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশের অর্থনৈতিক অঞ্চলে বিনিয়োগের জন্য দেশটির ব্যবসায়ীদের আহ্বান জানান। এরই পরিপ্রেক্ষিতে বিনিয়োগের সম্ভাব্যতা যাচাইয়ের জন্য সিঙ্গাপুর বিজনেস ফেডারেশনের ২৭ সদস্যবিশিষ্ট একটি প্রতিনিধি দল এক সপ্তাহের সফরে বর্তমানে বাংলাদেশে রয়েছে। এ সফরের অংশ হিসেবে তারা গতকাল বেজা কার্যালয়ে সভায় অংশ নেন।

    সভায় বেজার নির্বাহী চেয়ারম্যান পবন চৌধুরী বাংলাদেশের অর্থনৈতিক উন্নয়ন ত্বরান্বিত করার লক্ষ্যে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে অর্থনৈতিক অঞ্চল স্থাপনের পরিকল্পনা ও সে অনুযায়ী উন্নয়ন কার্যক্রম তুলে ধরেন। তিনি বলেন, ২০৩০ সালের মধ্যে প্রতি বছর অতিরিক্ত ৪ হাজার কোটি ডলার সমমানের পণ্য উৎপাদন বা রফতানির প্রত্যাশা নিয়ে অর্থনৈতিক অঞ্চল প্রতিষ্ঠার কার্যক্রম প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে বাস্তবায়ন করা হচ্ছে।

    সিঙ্গাপুরের ব্যবসায়ীদের প্রশ্নের আলোকে পবন চৌধুরী বলেন, মিরসরাই অর্থনৈতিক অঞ্চলে প্রায় ৩০ হাজার একর জমিতে একটি পরিকল্পিত শিল্পনগরীর উন্নয়নে কাজ করছে বেজা। চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষ এ অঞ্চলে একটি বাণিজ্যিক বন্দর নির্মাণের লক্ষ্যে সম্ভাব্যতা যাচাই করছে। বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ড, বাংলাদেশ পাওয়ার গ্রিড কোম্পানি লিমিটেড, চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষ, সড়ক ও জনপথ বিভাগসহ বিভিন্ন স্টেকহোল্ডারের সমন্বয়ে স্বয়ংসম্পূর্ণ শিল্পাঞ্চল তৈরির কাজ পূর্ণগতিতে এগিয়ে চলছে।

    সিঙ্গাপুরের ব্যবসায়ীদের প্রতিনিধিরা কর অবকাশ, বিনিয়োগের প্রকৃতি ও এর সঙ্গে সম্পর্কিত ব্যয় সম্পর্কে আগ্রহ প্রকাশ করেন। তারা জিটুজি ভিত্তিতে বাংলাদেশে জ্বালানি, বিদ্যুৎ, ফার্মাসিউটিক্যালস ও স্বাস্থ্য, জাহাজ শিল্প ও সেবা খাতে বিনিয়োগের বিষয়ে আগ্রহ দেখান।

    উল্লেখ্য, এর আগে সিঙ্গাপুরের ব্যবসায়ীরা মিরসরাই অর্থনৈতিক অঞ্চলে প্রায় ১০০ একর জমিতে বিনিয়োগের বিষয়ে একটি প্রস্তাবনা বেজার কাছে পেশ করেছিলেন। গতকালের সভায় তারা আরো ৩০০-৪০০ একর জমির প্রয়োজনীয়তার কথা জানান। সভায় বেজার উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারা ছাড়াও বাংলাদেশ-সিঙ্গাপুর চেম্বার ও বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন বোর্ডের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন। সূত্র: বণিক বার্তা।

    আরও পড়তে পারেন: 

    কমপ্লায়েন্স নিশ্চিতে প্রতিষ্ঠানের নিজস্ব আচরণবিধি থাকা প্রয়োজন: এম নুরুল আলম

    ওয়ালটনের টিভি বিক্রি বেড়েছে দ্বিগুণেরও বেশি

    This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.